‘স্যার আমি এক বছর মুরগির মাংস-পোলাও খাইনি’

Img

ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে এসে ৯০ উর্ধ্ব এক বৃদ্ধ বলেন, স্যার আমি এক বছর ধরে মুরগির মাংস-পোলাও খাইনি। এ কথা শুনে সালাম দিয়ে তার সামনের চেয়ারটিতে বসিয়ে বলেন, চাচা আপনি একটু সময় অপেক্ষা করুন। আমি ব্যবস্থা করছি। তিনি তাৎক্ষণিক অফিসের কেরানীকে নির্দেশ দিলেন আপনি মুরগি এবং পোলাও চাল ও কিছু তরকারি নিয়ে আসুন।

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) দুপুরে ময়মনসিংহের ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমানের সাথে এমন ঘটনা ঘটে।

বাজার করে আনার পর তিনি নিজের হাতে বৃদ্ধের কাছে বাজার বুজিয়ে দিয়ে তিনি নিজে অফিস থেকে নেমে রিকসায় উঠিয়ে দেন। এ সময় বৃদ্ধ আনন্দে কেঁদে দেন এবং তার জন্য দোয়া করে বলেন, আপনার এই ভালোবাসা আজীবন মনে রাখব।

ত্রিশালের উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আমি তার কথা শুনে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়ি। এমন হাজারও মা বাবা এভাবে দিন কাটাচ্ছেন। আমি একজন বাবার এতটুকু উপকার করতে পেরে নিজেকে গর্বিত মনে করছি। তিনি সমাজের প্রত্যেকটি মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহব্বান জানান।

পূর্ববর্তী সংবাদ

সাভারে সময় টিভির সাংবাদিককে হত্যার হুমকি

সাভারে পরিবহনে চাঁদাবাজি ও মাদকের ভয়াবহতা নিয়ে সময় টিভিতে অনুসন্ধানী দুটি প্রতিবেদন প্রকাশের পর প্রতিবেদকে প্রকাশ্যে গুলি ও বোমা মেরে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (২৩ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় আশুলিয়া থানায় জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন সময় টেলিভিশনের ঢাকা জেলা সাব-ব্যুরো প্রতিনিধি মোজাফ্ফর হোসেন জয়।

অভিযুক্ত মানিক নামে ওই ব্যক্তি বাইপাইল এলাকার চিহ্নিত মাদক কারবারি বলে জানা গেছে। 

সাধারণ ডায়েরি সূত্রে জানা যায়, সম্প্রতি সাভারে বেপরোয়া পরিবহন চাঁদাবাজি ও মাদকের ভয়াবহতা নিয়ে দুটি অনুসন্ধানী রিপোর্ট করেন সময় টেলিভিশনের রিপোর্টার মোজাফ্ফর হোসেন জয়। এঘটনার পর বুধবার বিকেলে আশুলিয়া প্রেসক্লাবে বসে অন্য সাংবাদিকেদর সাথে আলাপচারিতা করছিলেন তিনি। এসময় মানিক নামে এক ব্যক্তি প্রেসক্লাবে এসে সময় টেলিভিশনের রিপোর্টারের খোঁজ করতে থাকেন। পরে রিপোর্টার জয় এগিয়ে গেলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করতে থাকেন ওই ব্যক্তি। এক পর্যায়ে ওই রিপোর্টারকে গুলি করে ও বোমা মেরে হত্যার হুমকি দিয়ে কিছু বুঝে ওঠার আগেই সটকে পড়েন ওই ব্যক্তি।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী সাংবাদিক মোজাফ্ফর হোসেন জয় বলেন, পরিবহনে চাঁদাবাজি ও মাদক নিয়ে অনুসন্ধানী রিপোর্ট দুটি প্রচারিত হওয়ার পর ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়। ঢাকা জেলা পুলিশ দ্রুত বিচার আইনে চাঁদাবাজি বন্ধে ডজনখানেক মামলা দায়ের করে, গ্রেফতার করা হয় দুই ডজনেরও বেশি অভিযুক্তদের। আর এতে ক্ষুব্ধ হয়েই তাকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

এদিকে দেশ সেরা সময় টেলিভিশনের সাংবাদিক ও আশুলিয়া প্রেসক্লাবের সাবেক দুইবারের সভাপতি মোজাফ্ফর হোসেন জয়কে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যার হুমকিদাতাকে অবিলম্বে আটক করে শাস্তি নিশ্চিতের দাবি জানান সাভার, আশুলিয়া ও ধামরাইয়ের সকল সাংবাদিকসহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা।

এ ব্যাপারে আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) ইকবাল হোসেন জানান, সময় টিভির সাংবাদিককে হত্যার হুমকির ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছে। এঘটনায় তদন্ত করে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার