‘নবী’ দাবি করার অপরাধে আদালতেই গুলি করে হত্যা

Img

পাকিস্তানে ধর্ম অবমাননার দায়ে অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে আদালত কক্ষের ভেতর গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। গত বুধবার পেশওয়ারের একটি আদালতে মামলার শুনানি চলাকালীন এ হামলা চালানো হয়।

স্থানীয় প্রশাসন জানায়, হামলার পরপরই ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে হামলাকারীকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসায় দোষ স্বীকারও করেছেন তিনি।

গুলিতে নিহত তাহির আহমেদ নাসিম নিজেকে নবী দাবি করেছিলেন বলে অভিযোগ ছিলো। এতে মহানবী হযরত মোহাম্মাদ (সঃ) কে অবমাননা করা হয়েছে।

পাকিস্তানে ধর্মীয় অবমাননা আইনে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড। যদিও এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ শাস্তি দেয়া হয়নি কাউকে। তবে ১৯৯০ সাল থেকে বিভিন্ন সময় অভিযুক্তদের ওপর হামলা চালিয়ে হত্যা করা হয়েছে কমপক্ষে ৭৭ জনকে।

পূর্ববর্তী সংবাদ

কোরবানী: নাজমিন শুচি

আজ যে পশু গুলো আছে দাঁড়িয়ে 
মানুষের মতো নেইকো বোধ, 
আগামীকাল সকালে মহা উৎসবে
কোরবানির নামে হবে বধ!!

মনের পশু কে করতে হবে হত্যা 
নয়কো বনের পশু যত,
হতে হবে মানবিক বাসতে হবে ভালো
মনের দুয়ার খুলে অবিরত!! 

ঈশ্বরের দেখানো পথে না চলে 
কেন উল্টো পথে দিশেহারা, 
প্রতিবেশী ভাই বন্ধু স্বজনের নিও খোঁজ 
গরীব অসহায় আছে যারা!!

অভুক্ত থাকে যদি প্রতিবেশী চেনা জানা কেউ 
কষ্ট গুলো একটুখানি ভাগ নিও,
নিজের খাবার থেকে একমুঠো তাদের 
মুখে তুলে দিও!!

ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত হয়ে 
দুর করো মনের যত পাপ,
মনের পশু কে হত্যা করে 
ঈশ্বরের কাছে চাও মাফ!!

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার