গ্র্যাজুয়েট হতে হলে লাগাতে হবে চারা গাছ৷ গাছ লাগানোর বিষয়ে সচেতনতা তৈরিতে অভিনব আইন চালু করেছে দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশ ফিলিপাইন। নতুন এই আইনে কোনো শিক্ষার্থীকে গ্র্যাজুয়েশনে পাস করতে হলে কমপক্ষে দশটি করে গাছ লাগাতে হবে।

এই আইনের ফলে গাছ লাগানোকে একটি ঐতিহ্যবাহী অনুষ্ঠানের স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে। জলবায়ু দিনদিন পরিবর্তিত হচ্ছে ৷ বিশ্ব উষ্ণায়নের প্রভাবে পরিবেশ, আবহাওয়া সমস্ত কিছু বদলে যাচ্ছে ৷ সেই কারণে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে ৷

নতুন এই আইনের সমর্থকরা বলছেন, এটি বাস্তবায়ন হলে একটি প্রজন্মের মধ্যেই ৫২৫ বিলিয়ন গাছ লাগানো সম্ভব হবে।

ফিলিপিন্সের ম্যাগডালো পার্টির মুখপাত্র ও এই আইনের লেখক গ্রে অ্যালিজানো বলেন, প্রতি বছর প্রায় ১২ মিলিয়ন শিক্ষার্থী প্রাথমিক, পাঁচ মিলিয়ন শিক্ষার্থী মাধ্যমিক এবং পাঁচ মিলিয়ন শিক্ষার্থী উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করে। যদি এই আইনটি সুষ্ঠুভাবে বাস্তবায়ন করা যায় তাহলে প্রতি বছর ১৭৫ মিলিয়ন নতুন গাছ লাগানো সম্ভব হবে। এর মাধ্যমে এক প্রজন্মের মধ্যেই ৫২৫ বিলিয়ন গাছ লাগানো সম্ভব হবে।

এসব গাছ ম্যানগ্রোভ বন, বিদ্যমান কোনো বন, সুরক্ষিত এলাকাসমূহ, সেনা এলাকা, পরিত্যক্ত খনি এলাকা এবং নির্দিষ্ট কিছু শহুরে এলাকায় লাগানো হবে। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, অবস্থান অনুযায়ী রোপণের জন্য গাছের প্রজাতি নির্ধারণ করা হবে এবং দেশীয় গাছে প্রাধান্য দেওয়া হবে। দেশের শিক্ষা অধিদপ্তর এবং উচ্চ শিক্ষা কমিশন একসঙ্গে এটি বাস্তবায়নে কাজ করবে।

বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বন উজাড়ের একটি দেশ ফিলিপাইন। ২০ শতকে দেশটির ৭০ শতাংশ বনাঞ্চল ২০ শতাংশে এসে ঠেকেছে। অবৈধভাবে গাছ কর্তনের ফলে এমন সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে যা এখনো অব্যাহত রয়েছে। কিছু এলাকায় গাছের অভাবে বন্যা ও ভূমিধসের ঝুঁকি বাড়িয়ে দিয়েছে।