৯০ দিনের জন্য হোস্ট ভিসা চালু করছে সৌদি আরব

Img

নতুন একধরনের ভিসা চালু করতে যাচ্ছে সৌদি আরব, যা হচ্ছে হোস্ট ভিসা। এই ভিসার মাধ্যমে কোন সৌদি নাগরিক বা প্রবাসী নিজেদের খরচে ৯০ দিনের জন্য নিজেদের পরিচিত মানুষজনদের বা আত্মীয়-স্বজনদের সৌদি আরবে নিয়ে আসতে পারবেনচ।

সৌদি আরবে খুব শীঘ্রই চালু হতে যাচ্ছে “হোস্ট ভিসা” এর কার্যক্রম। এই ভিসার মাধ্যমে সৌদি আরবে বসবাসতর প্রবাসীরা বা কোন সৌদি নাগরিক তাদের নিজেদের উদ্যেগে ও আতিথেয়তায় উমরাহ হাজী বা ভ্রমনকারীদের আনতে পারবেন।

সৌদি আরবের হোস্ট ভিসা এর সংক্ষিপ্ত বিবরনঃ

  • সৌদি নাগরিকরা বা প্রবাসীরা তাদের পরিচিত বা আত্মীয়দের এই ভিসায় নিয়ে আসতে পারবেন।
  • প্রবাসীরা সর্বোচ্চ ৩-৫ জন নিকটাত্মীইয়কে আনতে পারবেন।
  • অতিথিরা হোটেলে বা হোস্টের বাড়িতে থাকতে পারবেন।
  • হোস্ট ভিসায় উমরাহ হজ করা যাবে।
  • এই ভিসায় সৌদি আরবের সকল ট্যুরিস্ট একটিভিটি উপভোগ করা যাবে।
  • প্রতিজনের জন্য হোস্ট ভিসার খরচ ৫০০ রিয়াল।
  • ভিসার মেয়াদকাল ১ বছর।
  • এই ভিসায় সর্বোচ্চ ৯০ দিন অবস্থান করা যাবে।
  • ভিসায় মাল্টিপল এন্ট্রি গ্রহনযোগ্য হবে না।
  • একইবছরে নতুন করে ভিসা ইস্যু করে সর্বোচ্চ তিনবার প্রবেশ করা যাবে।

এই হোস্ট ভিসা সিস্টেমের আওতায় প্রবাসীরা ও সৌদি নাগরিকেরা ৩ থেকে ৫ জন মানুষকে নিয়ে আসতে পারবেন। সৌদি নাগরিকরা যেকোন মানুষকেই নিয়ে আসতে পারবেন এই ভিসার মাধ্যমে, তবে প্রবাসীরা কেবলমাত্র নিকট আত্মীয়দেরই আনতে পারবেন।

এই ভিসার মাধ্যমে আগত অতিথিরা সৌদি আরবের সকল ট্যুরিস্ট একটিভিটি উপভোগ করতে পারবেন, এবং আয়োজক বা হোস্ট তার অতিথিদের নিয়ে সৌদি আরবের যেকোন স্থান ভ্রমন করতে পারেন, এবং চাইলে হোটেলে উঠতে পারেন বা নিজের বাড়িতেও অতিথিদের আপ্যায়ন করতে পারেন।

প্রতিজনের জন্য হোস্ট ভিসার খরচ হবে ৫০০ রিয়াল, এবং এর মেয়াদকাল এক বছর। হোস্ট ভিসায় আগত অতিথিরা সর্বোচ্চ ৯০ দিন পর্যন্ত সৌদি আরবে অবস্থান করতে পারবেন। হোস্ট ভিসা তে মাল্টিপল এন্ট্রি করা যাবে না, এবং একই ব্যক্তি নতুন করে ভিসা ইস্যু করে একবছরে সর্বোচ্চ তিনবার প্রবেশ করতে পারবেন।

বিগত ২৭শে সেপ্টেম্বর থেকেই সৌদি আরব ৪৯টি দেশের ট্যুরিস্টদের জন্য দেশের বর্ডার খুলে দিয়েছে, এবং দেশে ট্যুরিস্টদের আগমন বৃদ্ধি করার জন্য বিভিন্ন নতুন ভিসা পলিসি ও রেগুলেশন তৈরী করেছে। আশা করা যাচ্ছে এই হোস্ট ভিসা প্রবাসীদের এবং তাদের আত্মীয়দের জন্য সৌদি আরব ভ্রমনে ও ওমরাহ হজ এর জন্য বেশ উপকারী হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার