৪০ তম বিসিএসের সার্কুলার প্রকাশিত

Img

৪০ তম বিসিএসের সার্কুলার প্রকাশিত, আবেদন শুরু ৩০/৯/২০১৮, আবেদন শেষ ১৫/১১/২০১৮। সম্ভাব্য প্রিলি এক্সাম জানুয়ারি, ২০১৯।

৪০ তম বিসিএস মোট পদঃ ১৯০৩, কোটাধারীঃ ১০৬৬ জন। কোটাহীনঃ ৮৩৭ জন। আবেদন ফিঃ ৭০০ টাকা। গুরুত্বপূর্ণ ক্যাডার ভিত্তিক পদঃ বিসিএস প্রশাসন ২০০ বিসিএস, পুলিশ-৭২ বিসিএস কৃষি-১৩৪+০৯+১২=১৫৫ বিসিএস, মৎস্য-২৬ বিসিএস, প্রাণি সম্পদ-৮০ (৬৬+১৪) বিসিএস, আনসার-১২ বিসিএস, নিরীক্ষা ও হিসাব-২২ বিসিএস, সমবায়-১৭+=১৮ বিসিএস, শুল্ক ও আবগারি-৩২ বিসিএস, ইকনোমিক-৪৫ বিসিএস, খাদ্য-০৩ বিসিএস, পররাষ্ট্র-২৫ বিসিএস, তথ্য-০৬ বিসিএস, ডাক-০৬ বিসিএস, রেলওয়ে-০১+ বিসিএস, কর-২৪ বিসিএস, খাদ্য-০৫ বিসিএস, স্বাস্থ্য-২৬০ বিসিএস, পরিসংখ্যান-১২ গুরুত্বপূর্ণ কিছু সাধারন শিক্ষা ক্যাডার এর পদ সংখ্যাঃ বাংলা-৬৭, ইংরেজি-৩০, রাষ্ট্রবিজ্ঞান-৪২, দর্শন -৭৪, অর্থনীতি-৪২, প্রাণিবিদ্যা-৪২, ইতিহাস-১৮, সমাজ কল্যাণ-২১, রসায়ন-৪৪, ইসলামি শিক্ষা-১০, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি-৯২, পদার্থ-২৪, উদ্ভিদ-৪২, সমাজ বিজ্ঞান-১৩, গনিত-৯৩, ভূগোল-১৬, ব্যবস্থাপনা-৪৩, হিসাব বিজ্ঞান-৫৮, মার্কেটিং-১০, ফিনান্স-০৭।

পূর্ববর্তী সংবাদ

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার যেন মরার উপর খাঁড়ার ঘা।

মালয়েশিয়ার শ্রমবাজার যেন মরার উপর খাড়ার ঘা। এক বছরের ভিসা করতে লাগবে দুই লক্ষ টাকা। এখানে এক বছর কাজ করলে শ্রমিকদের বেসিক বার হাজার রিঙ্গিত বেতন আসে। সেখানে এক বছরের ভিসা নবায়নের জন্য দশ হাজার দেওয়ার ঘটনায় হতাশা হয়ে পড়েছে অভিবাসী এবং মালিকপক্ষ। গত ১২ সেপ্টেম্বর মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারা স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

এখন থেকে মালয়েশিয়ায় সর্বোচ্চ ১৩ বছর পর্যন্ত থাকা যাবে। কিন্তু দশ বছরের পর ১১ নং ভিসা করতে দিতে হবে ১০ হাজার রিংগিত , যা বাংলাদেশি টাকায় দুই লাখেরও বেশি। এমন ঘোষণায় বিভিন্ন দেশের শ্রমিক এবং মালিক পক্ষের মধ্যে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে। অনেকেই সমালোচনা করে বলেছেন মালয়েশিয়ায় শ্রমিক রাখতে চাই , নাকি বিদায় করতে চাই। তবে একাধিক সূত্র বলেছে এই বিষয়টি মূলত মালয়েশিয়ায় রেস্টুরেন্ট শ্রমিকদের জন্য এমন ঘোষণা দেওয়া হয়েছে।

গত মাসে এম কুলাসেগারা ঘোষণা করেছিলেন মালয়েশিয়ার রেস্টুরেন্ট এ মালয়েশিয়ান দিয়ে রান্নার কাজ করতে হবে, কোন প্রকার বিদেশী শ্রমিক দিয়ে রান্নার কাজ করানো যাবে না। তার এই ঘোষণায় ব্যাপক প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। আর সেই কারোনেই এবার ভিসার দাম বাড়িয়ে আবারো প্রমাণ করলেন বিদেশি শ্রমিক দিয়ে কাজ করাতে হলে ব্যাপক অর্থ খরচ করতে হবে মালয়েশিয়ান মালিকদের। কারন ব্যাপক অর্থ খরচ করে কোন মালিকপক্ষই বিদেশি শ্রমিকদের দিয়ে কাজ করাবে না। মালিকপক্ষের তাই মালিকপক্ষের প্রতিক্রিয়া কে আড়াল করে এবার ভিসার মূল্য বাড়িয়ে চমকে দিলেন মানব সম্পদ মন্ত্রী এম কুলাসেগারা।

প্রতিক্রিয়া (১৬) মন্তব্য (০) শেয়ার (৮)