৩৩ লাখ টাকা ছিনতাই করেও বহাল তবিয়তে সাতক্ষীরার শীর্ষ চোরাকারবারি মনি

Img

প্রকাশ্যে ৩৩ লাখ টাকা ছিনতাই করেও বহাল তবিয়তে সাতক্ষীরার শীর্ষ চোরাকারবারি শফিউল্লাহ মনি। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে রয়েছে নাশকতাসহ আরো ৮টি মামলা।

এসব মামলার বোঝা মাথায় নিয়েও প্রকাশ্যে
দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তিনি। সাতক্ষীরা সদর উপজেলার নলকুড়া গ্রামের আকরাম হোসেনের ছেলে কামরুল ইসলাম জানান, পেশায় তিনি একজন গরু ব্যবসায়ী।

বিভিন্ন গরুর হাট ও খামার থেকে গরু কিনে বিভিন্ন বাজারে বিক্রয় করেন তিনি। গত বছরের ২০ ডিসেম্বর দুপুর ২টার দিকে তলুইগাছার গরু ব্যবসায়ী আব্দুল খালেকের নিকট থেকে ৩২ লাখ ৮০ হাজার টাকা নিয়ে মোটরসাইকেল যোগে সাতক্ষীরা শহরের দিকে আসছিলেন। পথিমধ্যে মাধবকাটি ছয়ঘোরিয়া মোড়ে পৌছলে একটি সাদা রংয়ের প্রাইভেটকার যোগে শহরের দক্ষিণ কাটিয়ার মৃত শেখ মোশারফ হোসেনের ছেলে জেলার শীর্ষ চোরাকারি শেখ শফিউল্লাহ মনি, রমজান মাস্টারের ছেলে বাবন হোসেন ও পাটকেলঘাটার চৌগাছা গ্রামের হায়দার আলীর ছেলে টিপু সুলতান তার মোটর সাইকেলের গতিরোধ করে। সে সময় শফিউল্লাহ মনি তার মাথায় পিস্তল ঠেকিয়ে বাবন ও টিপুর সহযোগিতায় ওই টাকা ছিনিয়ে নিয়ে চলে যান।

এ ঘটনায় তিনি বাদী হয়ে ২৭ ডিসেম্বর মনিসহ তিনজনের বিরুদ্ধে সদর থানায় ৬৪ নং একটি মামলা দায়ের করেন। মামলার প্রায় ২৮ দিন অতিবাহিত হলেও এখনো পর্যন্ত গ্রেফতার হয়নি জেলার শীর্ষ চোরাকারবারি মনি ও তার সহযোগিরা। এদিকে, চোরাকারবারি শফিউল্লাহ মনিকে দ্রুতগ্রেফতারপূর্বক দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন সাতক্ষীরার সচেতন মহল।

এ ব্যাপারে জানার জন্য মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মো. বাবুল এর কাছে সন্ধ্যা ৭টা ২৩ মিনিটে তার ব্যবহৃত নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তিনি তার ফোনটি রিসিভ করেননি।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার