হাতুড়িপেটায় আহত নড়াইলের সাবেক ইউপি সদস্য সানোয়ারের মৃত্যু

Img

নড়াইলে তুচ্ছ ঘটনায় সানোয়ার হোসেন মোল্লা (৭০) নামে সাবেক এক ইউপি সদস্যকে হাতুড়িপেটা করে হত্যা করা হয়েছে।

আজ বৃহস্পতিবার ভোরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বেসরকারি যশোর পঙ্গু হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়েছে। পরে মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

মৃত সানোয়ার হোসেন নড়াইল সদর উপজেলার চণ্ডিবরপুর ইউনিয়নের নয় নম্বর ওয়ার্ডের তিনবারের নির্বাচিত ইউপি সদস্য ছিলেন। তিনি ভুমুরদিয়া গ্রামের মৃত গনি মোল্লার ছেলে।

নিহতের ছেলে মাহবুর মোল্লা জানান, গত ১০ জানুয়ারি বেলা ১১টার দিকে তার ছোটভাই রফিকুল ইসলাম মোটরসাইকেলযোগে বাড়ি থেকে নড়াইল শহরে যাচ্ছিলেন। পথে ভাদুরিয়া এলাকায় ফারুক নামে একজন ট্রাকচালক ধাক্কা দেয়। এ নিয়ে দত্তপাড়ার বাসিন্দা ফারুকের সাথে কথা কাটাকাটি হয়। তখন ফারুক তাকে জীবননাশের হুমকি দেয়। ওইদিন বিকেলেই তার বাবা সানোয়ার হোসেন মোটরসাইকেলযোগে নড়াইল থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। তিনি দত্তপাড়ায় পৌঁছালে ফারুক তার সহযোগী আজিজুর, এনামুল, ফরিদ ও ইমরুল মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে। এরপর বৃদ্ধ সানোয়ারকে হাতুড়িপেটা করে গুরুতর আহত করে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যান তারা। এরপর তারা বাবাকে উদ্ধার করে নড়াইল সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন। অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে ওই রাতেই যশোর পঙ্গু হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আজ ভোর চারটার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

যশোর জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক দেলোয়ার হোসেন খান বলেন, পাবলিক অ্যাসল্টের কারণে মারা যাওয়া একজনের মরদেহ পঙ্গু হাসপাতাল থেকে জেনারেল হাসপাতালে এসেছে। মৃতের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের অসংখ্য চিহ্ন রয়েছে। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নড়াইল সদর থানার ওসি ইলিয়াস হোসেন পিপিএম জানান, এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। হামলা মামলাটি এখন হত্যা মামলায় রূপান্তরিত হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার