সৌদি আরব প্রবাসী গিয়াসউদ্দিনের অকাল মৃত্যু

সাইদুল ইসলাম (সুমন) | নিজস্ব প্রতিবেদক : সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮

রিয়াদ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সিনিয়র সহসভাপতি গিয়াসউদ্দিন আহমেদ শাহবাজ আকস্মিকভাবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ২১ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার ভোর সাড়ে পাঁচটায় রিয়াদের ওবায়েদ হাসপাতালে তাঁর মৃত্যু বরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৩৮ বছর। শাহবাজ রিয়াদের একটি প্রতিষ্ঠিত কোম্পানীতে প্রশাসনিক কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করতেন।

গিয়াসউদ্দিন শাহবাজের সহকর্মীরা জানিয়েছে, রাতে আকস্মিকভাবে বুকের বামপাশে প্রচণ্ড ব্যাথা শুরু হলে রিয়াদের ওবায়েদ হাসপাতালে তাৎক্ষণিকভাবে তাঁকে ভর্তি করা হয়। ইমার্জেন্সি থেকে পরীক্ষা করার পর তাঁকে ‘ক্রিটিক্যাল সেল’-এ ভর্তি করা হয়। সেখানে চারজন ডাক্তার অন্তত দুই ঘণ্টা জরুরি চিকিৎসা এবং পরীক্ষা-নিরিক্ষা করার পর ভোর সাড়ে পাঁচটায় শাহবাজকে মৃত ঘোষণা করেন।

টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে ঢাকা থেকে রিয়াদ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক এমআরএইচ ভূঁইয়া রফিক এ ব্যাপারে সার্বিক খোঁজ-খবর করেন। আজ দিবাগত রাত দুইটায় জরুরি ভিত্তিতে তাঁর রিয়াদ পৌঁছানোর কথা রয়েছে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক।

এদিকে গিয়াসউদ্দিন শাহবাজের মৃত্যুসংবাদ পেয়ে তাঁর কোম্পানীর দুই জন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং বেশকিছু শুভাকাংখি তাৎক্ষণিক ছুটে আসেন হাসপাতালে। সকাল ৮টার দিকে হাসপাতালে ডিউটিরত ডাক্তার চিকিৎসা-তথ্য এবং মৃত্যুর কারণ বিবরণের সকল কাগজপত্র কোম্পানী কর্মকর্তার কাছে হস্তান্তর করেন। কাগজপত্র পাওয়ার পর কর্মকর্তারা মৃত শাহবাজের ছাড়পত্র নেওয়ার জন্য হাসপাতালের চাহিদা মোতাবেক স্থানীয় থানা এবং বাংলাদেশ দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ প্রক্রিয়া শুরু করেন।

তাঁর বাড়ি হবিগঞ্জের আজমিরিগঞ্জ উপজেলার জলসুখা ইউনিয়নের ভাটিবাংলা গ্রামে। ভাটিবাংলায় তাঁর স্ত্রী, দুই ছেলে এবং এক মেয়ে সন্তান রয়েছে।

বর্তমানে গিয়াসউদ্দিন শাহবাজের মৃতদেহ ওবায়েদ হাসপাতালের হীমঘরে রাখা হয়েছে। সহযোগীরা জানিয়েছে, এসব কাগজপত্র যোগাড় করার পর রিয়াদের সরকারি সোমেসি হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র পেয়ে দ্রুত তাঁর লাশ দেশের বাড়িতে পাঠানো হবে।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৮

প্রতিবেদক: সাইদুল ইসলাম (সুমন)

পড়েছেন: 553 জন

মন্তব্য: 0 টি