সৌদি আরবে ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সীমিত আকারে চালু হচ্ছে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট

Img

সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ঘোষণা দিয়েছে, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদিমুখী ও সৌদি থেকে মধ্যপ্রাচ্যের (জিসিসি) দেশগুলোতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে সংক্ষিপ্ত আকারে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু হচ্ছে এই মর্মে সৌদি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে নিশ্চিত করেছে।

নির্দিষ্ট কিছু দেশের এবং নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির যাত্রীগণ প্রথম দফাতে সৌদি আরবে প্রবেশের অনুমতি পাবেন। পরবর্তীতে করোণা পরিস্থিতি উপর নির্ভর করে পহেলা জানুয়ারি ২০২১ থেকে আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু এবং জল-স্থল-আকাশসহ সব পথের চলাচল উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে।

অন্যদিকে ১লা জানুয়ারী ২০২১ থেকে করোনার কারনে যে ভ্রমন নিষেধাজ্ঞা ছিল তা তুলে নিবে, এবং জিসিসি নাগরিক এবং ভিসা ধারী সকলে ২০২১ এর ১লা জানুয়ারী থেকে সৌদি প্রবেশ করতে পারবে। এছাড়াও ইতিমধ্যেই উমরা চালু হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ইনশাআল্লাহ এ বিষয়ে শীঘ্রই যেকোনো সময় ঘোষণা আসবে।

পূর্ববর্তী সংবাদ

জমি লিখে নিয়ে বৃদ্ধ বাবা-মাকে ঘরছাড়া করলেন ছেলেরা

কতটা পাষণ্ড! সম্পত্তির লোভে নিজের বাবা-মা এর সাথে এতটা বর্বরতা। তাও সম্পত্তি লিখে নিয়ে ৭০ বছরের অসুস্থ বৃদ্ধ বাবা জামেরুল ও মা রাশেদাকে (৬৫) বাড়ি থেকে বের করে দিলেন তিন ছেলে। 

আর কোনো উপায় না পেয়ে বৃদ্ধ আর বৃদ্ধা আশ্রয় নেন একটি বন্ধ স্কুলের কক্ষে।

পরে পুলিশ জানতে পেরে ওই বৃদ্ধ ও বৃদ্ধাকে উদ্ধার করে বাড়িতে ফিরিয়ে দেওয়ার উদ্যোগ নেন। ঘটনাটি ঘটেছে গুরুদাসপুর পৌর এলাকার উত্তর নারীভাড়ি মহল্লায়। বৃদ্ধা স্ত্রী রাশেদা বেগম জানান, স্বামী প্যারালাইসিসের রোগী। তার চিকিৎসার জন্য জমিজমা শেষ।

মাত্র তিন শতক জায়গা ছিল তাদের নামে, ভরণপোষণের আশ্বাস দিয়ে ওই সম্পত্তি লিখে নেন তাঁর তিন ছেলে জালাল (৪৫), আলাল (৪২) ও রসুল (৩৮)। কিছুদিন পর তাদের ভরণপোষণ বন্ধ করে দেয় ছেলেরা। বৃদ্ধা রাশেদা আরো জানান, রবিবার ছোট ছেলে মোফাজ্জলের কাছে খাবার চান তিনি। তখন তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করতে থাকে মোফাজ্জল। এক পর্যায়ে বৃদ্ধা মাকে বাড়ি মেরামতের অজুহাতে বাসা থেকে তাড়িয়ে দেয়।

এসময় তারা উপায়ান্তর না পেয়ে পার্শ্ববর্তী শহীদ মবিদুল উচ্চ বিদ্যালয়ের বারান্দায় আশ্রয় নেয়। পরবর্তীতে স্কুলের প্রধান শিক্ষক মিটিং করতে এসে ওই দৃশ্য দেখে তাদেরকে একটা কক্ষ খুল দেন।

গুরুদাসপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. মোজাহারুল ইসলাম বলেন, সংবাদ পেয়ে অন্ধকার কক্ষ থেকে বৃদ্ধ মা-বাবাকে উদ্ধার করে নিরাপদ আশ্রয়ে নেওয়া হয়েছে। তাদের মাঝে ১০ কেজি চাল, ১ কেজি ডাল, তেল, আলুসহ প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র দেওয়া হয়েছে। তাদের ছেলেদের জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য থানায় আনা হয়েছে। বৃদ্ধ দম্পতিদের নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার