সৌদি আরবে বাংলাদেশীদের উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ

Img

সৌদি আরবে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ার সুযোগ তৈরি হতে যাচ্ছে। সৌদি  আরবে বসবাসরত বাংলাদেশী অভিবাসীগণ জেনে আনন্দিত হবেন যে, বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় প্রবাসীদের দক্ষতা ও শিক্ষাগত যোগ্যতা বৃদ্ধির জন্য সৌদি আরবে বিভিন্ন কোর্স চালু করতে যাচ্ছে।

আগ্রহীগণ নিম্নের নমুনা মোতাবেক তথ্যসমূহ ইমেইলে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হল। ইমেইল পাঠানোর শেষ তারিখ ২৫ জানুয়ারি, ২০২০। আগ্রহী প্রার্থীদের সংখার ভিত্তিতে কোর্স চালু করার সিদ্ধান্ত নেবে বিশ্ববিদ্যালয়। (উল্লেখ্য এটি কোন ভর্তির বিজ্ঞাপন নয়, ভর্তির বিজ্ঞাপন পরে দেয়া হবে)

 

পূর্ববর্তী সংবাদ

সরকার আইনজীবীদের কল্যাণে সব করতে প্রস্তুত: আইনমন্ত্রী

বর্তমান সরকার আইনজীবীদের কল্যাণে সব করতে প্রস্তুত বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক। তিনি বলেন, ‘আমি আপনাদেরই একজন। আইন পেশার সঙ্গে আমার এক পুরুষের সম্পর্ক না, এর সঙ্গে আমার দু-তিন পুরুষের সম্পর্ক। আমি মনে করি, সুপ্রিম কোর্ট বারের যে লাইব্রেরি আছে, এটি এশিয়া মহাদেশের সব বারের থেকেও সমৃদ্ধশালী লাইব্রেরি হওয়া উচিত।’

সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সমিতি অডিটোরিয়ামে আইনজীবীদের লাইব্রেরির জন্য ৩০ লাখ টাকার চেক প্রদান অনুষ্ঠানে সোমবার (১৩ জানুয়ারি) তিনি এ মন্তব্য করেন।

এ সময় সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবীদের জন্য একটি আধুনিক ও সমৃদ্ধশালী লাইব্রেরি করতে যা যা দরকার তার সব ব্যবস্থা করে দেয়ার আশ্বাস দিয়েছেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘সুপ্রিমকোর্ট বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী ৩০ লাখ টাকা দিয়েছেন, এটিকে উপহার বলব। আর এটাই শেষ নয়। আগামী চারবছর ধরে প্রতিবছরই এ পরিমাণ (৩০ লাখ) অনুদান অব্যাহত থাকবে।’

তিনি সুপ্রিম কোর্ট বারের লাইব্রেরিকে আরও সমৃদ্ধ করতে আলাপ-আলোচনা করে ঠিক করতে বলেছেন বার সভাপতি ও সম্পাদককে।

তিনি বলেন, ‘আইনজীবীদের বসার জায়গা প্রয়োজন, এটা আমি আইনজীবী হিসেবে বুঝি।’ জায়গার সংকট কাটাতে নতুন ভবন তৈরি করতে একটা পরিকল্পনা তৈরি করে দিতে বলেছেন আনিসুল হক।

মন্ত্রী বলেন, ‘জায়গা নিয়ে সুপ্রিমকোর্ট প্রশাসন এবং আইনজীবী সমিতি যদি একটা সিদ্ধান্ত নিতে পারেন তাহলে টাকা নিয়ে আপনাদের কোনো সমস্যা হবে না। আপনারা প্রস্তাব দেবেন, যুক্তিসঙ্গত হলে নিশ্চয় আপনাদের সুবিধার্থে সেটি করা হবে। কিন্তু প্রকল্প তৈরি না করে টাকা চাইলে সরকার হাওয়ার ওপর টাকা দিতে পারে না।’

আনিসুল হক বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এ সুপ্রিম কোর্ট ভবন উদ্বোধন করেছিলেন। সুতরাং বর্তমান সরকার বিচার বিভাগের উন্নয়নে কাজ করবে। এই সরকার বিচার বিভাগের স্বাধীনতায় বিশ্বাসী।’

সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকনের সঞ্চালনায় চেক প্রদান অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম আদালত প্রাঙ্গণে সুন্দর পরিবেশ বজায় রাখতে আইনজীবীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, ‘দায়িত্ব নিজের হাতে তুলে নেবেন না। আইনজীবীদের বসার চেম্বার (কিউবিক্যালস) নির্বাচনের হাতিয়ার হিসেবে ব্যবহার করবেন না। আইনজীবীদের নেতৃত্বের পরিবর্তন হতে হবে। সরকারের ওপর আস্থা রাখুন। সরকার আপনাদের জন্য সবকিছুই করবেন।’

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার