সুশান্তকে খুন করা হয় কুকুর ফাজের বেল্ট দিয়েই!

Img

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে প্রতিদিনই নতুন নতুন তথ্য সামনে আসছে। গত ১৪ জুন, বান্দ্রায় অভিনেতার ফ্ল্যাট থেকেই তাঁর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

মাত্র ৩৪ বছর বয়সে বলিউডের নবীন তারকার আচমকা আত্মহত্যায় গোটা ভারত চমকে উঠেছে। কেন হঠাৎ মারা গেলেন তিনি তা নিয়ে বিস্তর আলোচনা শুরু হয়েছে।

এর পর থেকেই একে অনেকেই খুন বলে দাবি করছেন। সেই নিয়ে মামলা শুরু হওয়ার পর শেষ পর্যন্ত এই মৃত্যুতদন্তের ভার নিয়েছে ভারতের কেন্দ্রীয় গোয়েন্দারা অর্থাৎ সিবিআই।

সিবিআই এই ঘটনার তদন্তভার নেওয়ার পর থেকেই একের পর এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে আসতে শুরু করেছে। এবার মুখ খুলেছেন সুশান্তের প্রাক্তন সহায়ক অঙ্কিত আচার্য।

২০১৭-র জুলাই থেকে ২০১৯-এর আইগস্ট মাস পর্যন্ত সুশান্তের সঙ্গে কাজ করেছেন তিনি। অঙ্কিত মনে করেন, সুশান্তের এই অস্বাভাবিক মৃত্যু কখনওই আত্মহত্যা পারে না। তাকে খুন করা হয়েছিল। সুশান্তের মৃত্যুর পরই সোশ্যাল মিডিয়ায় অভিনেতার মৃতদেহের ভাইরাল হওয়ার ছবির উল্লেখ করে অঙ্কিত দাবি করেছেন, সুশান্তের গলায় ওই দাগ তাকে ফাঁস দিয়ে খুন করারই প্রমাণ।

তিনি মনে করেন, ৩৪ বছরের সুশান্ত যদি সিলিংয়ের সঙ্গে ফাঁস লাগিয়ে ঝুলে পড়তেন তবে তার জিভ ও চোখ বেরিয়ে আসার কথা। তার গলায় ইংরেজি ইউ শেপের দাগ থাকার কথা। কিন্তু সুশান্তের গলায় মিলেছে ইংরেজি ও শেপের দাগ। অঙ্কিত মনেপ্রাণে বিশ্বাস করেন, এটি কোনও ভাবেই আত্মহত্যা নয়। সুশান্তকে খুনই করা হয়েছিল।

অঙ্কিতের কথায়, গলায় ফাঁস দিয়ে সুশান্তকে খুন করা হয়েছে। সুশান্তের পোষ্য কুকুর ফাজের গলার বেল্ট ব্যবহার করেই সুশান্তকে খুন করেছে অপরাধীরা।

তিনি বলেছেন, 'আমি আপনাদেরকে এটাও বলতে পারি যে সুশান্তের গলায় ওটা কীসের দাগ ছিল। ওটা ওর পোষ্য ফাজের বেল্ট। ওই বেল্টেরই দাগ ওটা। আমার কাছে ওই মৃতদেহের ছবিটা এখনও রয়েছে। আমি রোজ সেটা দেখি ও নিশ্চিত হই যে ওটা ফাজের বেল্টের দাগ। শয়তানরা ফাজের বেল্ট সুশান্তের গলায় আটকে তাকে শ্বাসরোধ করে খুন করেছে।'

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার