সিংগাপুর হসপিটালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলেন খুলনার এমপি

Img

খুলনা ৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম মোস্তফা রশিদী সুজা সিংগাপুরেরর অর্চিডে অবস্থিত মাউন্ট এলিজাবেদ হাসপাতালে চিকিৎসা ধীন অবস্থায় বৃহষ্পতিবার রাত আনুমানিক রাত ১১ টায় মারা গেছেন। (ইন্না....রাজেউন)।

আট মাস আগে কিডনী প্রতিস্থাপন করা হয় এই হাসপাতাল থেকে। ১৮ জুলাই পহেলা রোজায় আবার চিকিৎসার জন্য সিংগাপুরে যান। সিংগাপুরে তার সাথে তার স্ত্রী অবস্থান করছেন।

মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও দুই মেয়ে, নাতি নাতনী সহ অসংখ্য গুন গ্রাহী রেখে গেছেন। তিনি তিন বার খুলনা-৪ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ৯৬-থেকে ২০০১ সাল তিনি জাতীয় সংসদের হুইপ এর দায়িত্ব পালন করেন। তিন বার খুলনা জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। একবার কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২ মার্চ ১৯৫৩ সালে বাগেরহাটের ফকির হাটে জন্মগ্রহন করেন তিনি। তিনি তার পিতার বর সন্তান ছিলেন। এদিকে তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন পাইকগাছা উপজেলা এবং কপিলমুনি আলীগ নেতৃবৃন্দ ।

পূর্ববর্তী সংবাদ

খেলার মাঠ থেকে রাজনীতির মাঠে।

ক্রিকেট থেকে রাজনীতি, ১৯৯২ এর পর ২য় জয় ২০১৮, ইমরান খান নিয়াজি। পাকিস্তান জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক খেলোয়াড় এবং অধিনায়ক। খেলোয়াড়ি জীবন শেষে তিনি রাজনীতিতে জড়িয়ে পড়েন। তিনি বিশ্ব ক্রিকেটের সর্বকালের অন্যতম সেরা অলরাউন্ডারদের একজন। তাঁর অধিনায়কত্বে পাকিস্তান ১৯৯২ সালে বিশ্বকাপ জয় করে।

এখই ভাবে তার নেতৃত্ব তাকে করেতে যাচ্ছে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী। পাকিস্তানের চ্যানেল জিও টিভির শেষ আপডেট অনুযায়ী, পিটিআই ১২০, পিএমএল-এন ৬১ এবং পিপিপি ৪০। পাশাপাশি সব পরিসংখ্যানেই এটা নিশ্চিত দেখা যাচ্ছে, ভোটের ময়দানেও সেঞ্চুরি করে ফেলেছেন ‘কাপ্তান’ ইমরান।

শুধুমাত্র ক্রিকেট বা রাজনীতিতে নয় তিনি সকল ক্ষেত্রে সেরাদের সেরা। এক নজরে ইমরান খান :

১.অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র।

২.ইংল্যান্ডের সেরা প্রেমিক পুরুষ।

৩.সেই সময়ে বিশ্বের সকল সুন্দরীর কল্পলোকের রাজা।

৪.এক পকেটে পদত্যাগ পত্র, অন্য পকেটে নিজের পছন্দের খেলোয়াড়দের লিস্ট নিয়ে ক্রিকেট বোর্ডকে রাজী করা।

৫.Opening Batsman,opening bowling .

৬.ব্রিটিশ ধনকুবেরের কন্যাকে বিয়ে

৭.অন্য কোন রাজনৈতিক দলে যোগ না দিয়ে নিজস্ব দল গঠন।

৮.2018 সালে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী !!

বর্তমান সময়ে ইমরানের তুলনা শুধুমাত্র ইমরানই। ইমরার খান হতে পারে অামাদের দেশের রাজনীতির জন্য বড় উদাহারণ। কেননা তৃতীয় শক্তি হিসিবে ইমরান খান প্রধানমন্ত্রী হচ্ছে।

তার ভক্তদের এখন প্রশ্ন হতে পারে কি পারেন না ইমরান খান? হয়তো সময় বলে দিবে সেটা।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার