সাভারে নদী দখল-দূষণের প্রতিবাদে মানববন্ধন

Img

ঢাকার সাভারে বংশী ও ধলেশ্বরী নদীর তীর দখল করে বিভিন্ন স্থাপনা তৈরিসহ দূষণের প্রতিবাদে র‌্যালি ও মানববন্ধন করেছেন নদী ও পরিবেশ উন্নয়ন পরিষদ। এসময় জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতা ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ একাত্মতা জানিয়ে কর্মসূচিতে অংশ নেন।

শনিবার সকাল ১১টার দিকে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের থানা স্ট্যান্ড এলাকায় মানববন্ধন কর্মসূচি পালিত হয়। পরে র‌্যালিতে অংশ নিয়ে নদী দখল ও দূষণকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদী স্লোগান দিতে থাকেন তারা। র‌্যালিটি মহাসড়ক প্রদক্ষিণ করে শাখা সড়ক হয়ে সাভার বাজারের বংশী নদীর তীরে গিয়ে শেষ হয়। সেখানেও ট্রলারে মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। 

এসময় নদী ও পরিবেশ উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি কৃষিবিদ ড. রফিকুল ইসলাম মোল্লা, সহ-সভাপতি পারভিন ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক শামসুল হক, ভাইস প্রেসিডেন্ট রহিম উদ্দিন, সাভার উপজেলা পরিষদের সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান রোকেয়া হক ও সাভার উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম সমরসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ‘সাভার বাজারের তীর দিয়ে সব জায়গা দখল করে বাণিজিক কাজে ব্যবহার হচ্ছে। বংশী নদীর পূর্ব পাড়ের তীরবর্তী এলাকা গুলো অলমোস্ট সবটাই দখলে। ধলেশ্বরী নদীর ব্রীজ থেকে বংশী নদীর নয়ারহাট ব্রীজ পর্যন্ত বাজারের কাছে তীরবর্তী এলাকা গুলো পুরোপুরি দখলে। এছাড়া ইপিজেড এলাকার কারখানা গুলো ইটিপি ব্যবহার না করে বিষাক্ত বর্জ্য নদীতে ফেলে দূষণ করছে।’ 

তারা আরো বলেন, ‘আমরা এগুলো নিয়া বহুবার মানববন্ধনসহ আবেদন করছি। আমাদের প্রচেষ্টায় এবং সরকারি ভাবে ঢাকা জেলা প্রশাসন দুই বছর আগে ৬৫ জন দখলকারীর তালিকা প্রস্তুত করেছিল। আমরা নদী কমিশনের চেয়ারম্যানকে বলেছি, এই তালিকায় আমার স্যাটিসফাইড না। তালিকাভুক্ত ৬৫জন এই যে দখল করছে তা না। এই সংখ্যা আরো তিন গুণ হবে। আমরা পূর্ণাঙ্গ তালিকা প্রকাশ করার দাবি জানিয়েছি। আর তালিকাভুক্ত ৬৫ জনকে উচ্ছেদ করা হোক। যাতে নদীর গতিপথ ঠিক থাকে। আমরা অবিলম্বে যারা নদী দখল করে রেখেছে তাদের উচ্ছেদ করে পাড় গুলো মানুষের চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করে দেয়া হোক।’ 
 

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার