সাতক্ষীরায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক পল্লী চিকিৎসকসহ দুই জনের মৃত্যু

Img

সাতক্ষীরায় করোনার উপসর্গ নিয়ে এক পল্লী চিকিৎসকসহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। রোববার সকালে ও শনিবার রাতে তারা মারা যান।

মৃত ব্যক্তিরা হলেন, কালীগঞ্জ উপজেলার ভাড়াশিমলা ইউনিয়নের মারকা গ্রামের মৃত বাহার আলী গাজীর ছেলে পল্লী চিকিৎসক ওমর ফারুক (৬০) ও তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার বাইগুনি গ্রামের আবুল খায়ের বিশ্বাসের ছেলে রবিউল ইসলাম (৩৫ )।

কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. শেখ তৈবুর রহমান জানান, পল্লী চিকিৎসক ওমর ফারুক সর্দি, কাশি, জ্বর ও গলাব্যথাসহ বিভিন্ন উপসর্গ নিয়ে শনিবার সকালে কালিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আসেন নমুনা পরীক্ষার জন্য। নমুনা সংগ্রহের পর তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। কিন্তু তিনি ভর্তি হতে না হয়ে বাড়িতে চলে যান। এরপর রাতে তার অবস্থার অবনতি হলে তার স্বজনরা তাকে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়।

এদিকে, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডাঃ রফিকুল ইসলাম জানান, জ¦র ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে তালা উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার বাইগুনি গ্রামের রবিউল ইসলাম আজ রোববার সকালে মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন। পরে তাকে আইসোলেশনে নেয়া হয়। এরপর সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় কিছুক্ষণ পরে তিনি মারা যান। তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়েছে বলে জানান হাসপাতালের তত্বাবধায়ক। তবে, মৃত দুই জনেরই নমুনা পরীক্ষার রিপোর্ট এখনও পাওয়া যায়নি বলে তারা জানান।

পূর্ববর্তী সংবাদ

সুন্দরবনে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ খান বাহিনীর তিন সদস্য নিহত

সুন্দরবনে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ দস্যু খান বাহিনীর তিন সদস্য নিহত হয়েছেন। এ সময় আরও দুই দস্যুকে আটক ও দুই জেলেকে উদ্ধার করা হয়। দস্যুদের কাছ থেকে পাঁচটি আগ্নেয়াস্ত্র, ৩৩ রাউন্ড গুলি ও অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

শনিবার (২৭ জুন) রাতে সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের হরদহ এলাকায় ‘বন্দুকযুদ্ধের’ এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- সাতক্ষীরার হরদহ এলাকার মো. লুৎফর রহমানের ছেলে শরিফুল ইসলাম (২৪), আশাশুনি উপজেলার বসুখালীর মৃত জামাত আলীর ছেলে হাবিবুর রহমান (২৪) ও অজ্ঞাত এক যুবক (২৫)। আটক দুইজনের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

র‍্যাব জানায়, সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের মামদো নদী, মালঞ্চ নদী, খোপড়াখালী নদী ও ফিরিঙ্গি নদী এলাকায় বিশেষ অভিযান চালায় র‍্যাব-৬। গত বৃহস্পতিবার (২৫ জুন) রাত থেকে রোববার (২৮ জুন) ভোর পর্যন্ত এ অভিযান চালানো হয়। এর আগে শনিবার রাতে সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের হরদহ এলাকায় বন্দুকযুদ্ধে তিন দস্যু নিহত হয়।

রোববার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে খুলনার র‍্যাব-৬ কার্যালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে র‍্যাবের নবনিযুক্ত মহাপরিচালক চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, সুন্দরবনে নতুন করে দস্যুতায় নামার চেষ্টা করলে তাদের পরিণতি এমন হবে। আমাদের গোয়েন্দা নজরদারির থেকে কেউ পার পাবে না। কাজেই দস্যুতার পথ ছেড়ে দেন।

প্রেস ব্রিফিংয়ে উপস্থিত ছিলেন- র‍্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্নেল তোফায়েল মোস্তফা সরোয়ার, র‍্যাব-৬-এর অধিনায়ক লে. কর্নেল রওসোনুল ফিরোজ প্রমুখ।

প্রতিক্রিয়া (৩) মন্তব্য (০) শেয়ার (৭)