সাতক্ষীরার দেবহাটায় ফিরোজা বিবি (৩৮) নামের এক ইসলাম ধর্ম গ্রহনকারী গৃহবধুকে পিটিয়ে জখম করেছে তার স্বামীর স্বজনেরা।

আহত ফিরোজা বিবি বর্তমানে সখিপুরস্থ দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তিনি দেবহাটা উপজেলার সদর ইউনিয়নের আজিজপুর গ্রামের আনসার আলীর স্ত্রী।

মঙ্গলবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে ফিরোজা বিবি বাড়ীতে অবস্থানকালে তার স্বামীর ভগ্নিপতি আজিজপুর গ্রামের সাবুর আলী গাজী, বোন শরিফা খাতুন, ভাগ্নে মো. হাসান ও ভাগ্নের স্ত্রী তহমিনা খাতুন পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে মারপিট সহ গলায় রশি দিয়ে পেঁচিয়ে তাকে হত্যার চেষ্টা করে।

আহত গৃহবধু ফিরোজা বিবি’র স্বামী আনসার আলী জানান, দু’বছর আগে নোটারী পাবলিকের মাধ্যমে হিন্দু ধর্ম থেকে ধর্মান্তরিত হয়ে ইসলাম ধর্ম গ্রহনের পর ফিরোজা বিবিকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর থেকে তার ভগ্নিপতি আজিজপুর গ্রামের সাবুর আলী গাজী, বোন শরিফা খাতুন, ভাগ্নে মো. হাসান ও ভাগ্নের স্ত্রী তহমিনা খাতুন এ পর্যন্ত তিনবার তার স্ত্রী ফিরোজা বিবিকে বেধড়ক মারপিট করে হত্যার চেষ্টা করেছে।

মঙ্গলবার রাতে পুর্ব পরিকল্পিত ভাবে তারা হত্যার উদ্দেশ্যে ফিরোজা বিবিকে মারপিট করতে থাকে। এসময় রশি দিয়ে গলায় পেঁচিয়ে হত্যার চেষ্টা সহ তারা লাঠি দিয়ে মেরে ফিরোজা বিবির মাথা ফাঁটিয়ে দেয়। একপর্যায়ে তাদের ডাক চিৎকারে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে ছুটে আসলে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয়দের সহায়তায় গুরুতর আহত অবস্থায় ফিরোজা বিবিকে সখিপুরস্থ দেবহাটা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন তিনি।

এব্যাপারে জড়িতদের বিরুদ্ধে দেবহাটা থানায় অভিযোগ দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলেও জানান আহতের স্বামী আনসার আলী।