সাতকানিয়ায় ট্র্যাজেডি: গ্রেফতার ৪ জনের জামিন

মোঃ জাহেদুল ইসলাম | নিজস্ব প্রতিবেদক : মে ১৬, ২০১৮

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় যাকাত ও ইফতার সামগ্রী সংগ্রহের সময় পদদলিত হয়ে ১০ নারী-শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় গ্রেফতার ৪ জনের জামিন মঞ্জুর করেছেন আদালত।

১৬ মে বুধবার চট্টগ্রামের সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল হাসান আসামি পক্ষের জামিন শুনানি শেষে তাদের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

আসামি পক্ষের আইনজীবী অ্যাডভোকেট চন্দন দাশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে পদদলনের ঘটনায় ১৫ মে মঙ্গলবার সকালে একটি মামলা হয়। নিহত হাসিনা আক্তারের স্বামী মো. ইসলাম বাদী হয়ে সাতকানিয়া থানায় মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় অবহেলায় মৃত্যুর কারণ দেখিয়ে দণ্ডবিধি ৩০৪ (ক) ও ৩৪ ধারায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে। মামলায় প্রধান আসামি করা হয়েছে কেএসআরএমের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ শাহজাহানকে। এছাড়া ব্যবস্থাপনার সাথে জড়িতদের অজ্ঞাত আসামি করা হয়েছে।

মামলার পর ওইদিন (১৫ মে মঙ্গলবার) বিকালে কবির স্টিল রিরোলিং মিলস লিমিটেডের (কেএসআরএম) ব্যবস্থাপনা পরিচালকের (এমডি) বাড়ির পাশ্ববর্তী এলাকা থেকে সাতকানিয়ার মক্কার বাড়ির ছিদ্দিক আহমদের ছেলে মুরিদুল আলম প্রকাশ মুরাদ (২৭),পূর্ব গাটিয়াডেঙ্গার জাকির হোসেনের ছেলে মো. ইদ্রিছ (২৬), আমিলাইশ এলাকার সোলায়মানের ছেলে হাবিব আহমদ সাহেদ (৩২) এবং হাঙ্গরমুখ (খন্দকার পাড়া) এলাকার মো. ইদ্রিছের ছেলে আজগর আলী (২৮) কে গ্রেফতার করে সাতকানিয়া থানা পুলিশ।

এর পর বুধবার তাদের চট্টগ্রামের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হলে চারজনের আইনজীবীরা জামিনের আবেদন করেন। পরে সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মাহমুদুল হাসান আদালতে চার্জশিট দাখিল না হওয়া পর্যন্ত ওই চারজনের জামিন আবেদন মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, ১৪ মে সোমবার সকালে চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার নলুয়া ইউনিয়নের কাদেরিয়া মঈনুল উলুম দাখিল মাদ্রাসা হেফজখানা ও এতিমখানার মাঠে শিল্প প্রতিষ্ঠান ‘কবির স্টিল অ্যান্ড রি-রোলিং মিলস লিমিটেড’ (কেএসআরএম)-এর যাকাত ও ইফতার সামগ্রী বিতরণের সময় প্রচুর মানুষের সমাগম ঘটে। এ সময় কেএসআরএম’র নিজস্ব নিরাপত্তা কর্মীরা চাপ কমাতে লাঠিচার্জ করে। তাদের লাঠিচার্জের আঘাত এড়াতে নারীরা দৌড়ে সরে যাওয়ার সময়ই পদদলনের ঘটনা ঘটে। এ পদদলনের ঘটনায় শিশুসহ ১০ নারী নিহত এবং কমপক্ষে ৫০ জন আহত হন।

তথ্য:

বিভাগ:

প্রকাশ: মে ১৬, ২০১৮

প্রতিবেদক: মোঃ জাহেদুল ইসলাম

পড়েছেন: 541 জন

মন্তব্য: 0 টি