সরকারিভাবে বিদেশ যেতে আগ্রহীদের নিবন্ধন শুরু রোববার

Img

কোনো দালাল বা মধ্যসত্ত্বাভোগী ছাড়াই সরকারিভাবে বিদেশ যেতে আগ্রহীদের নিবন্ধন শুরু হচ্ছে আগামী রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি)। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন জনশক্তি কর্মসংস্থান ও পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিএমইটি) কেন্দ্রীয় ডাটাব্যাংকে এ নিবন্ধন কর্মসূচি শুরু হচ্ছে।

দক্ষ, স্বল্পদক্ষ, অদক্ষ এবং পেশাজীবী নারী-পুরুষ উভয়েই এখানে নিবন্ধন করতে পারবেন। আগ্রহীরা মোবাইল ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে (বিকাশ/নগদ/সিওরক্যাশ/রকেট) ২০০টাকা পাঠিয়ে এ নিবন্ধন সম্পন্ন করতে পারবেন। জনশক্তি কর্মসংস্থান ও পরিসংখ্যান ব্যুরো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সরকারের নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী বছরে প্রতি উপজেলা থেকে ১ হাজার কর্মী বিদেশ পাঠানোর কথা রয়েছে। সে অনুযায়ী সরকারিভাবে বিদেশে কর্মী পাঠাতে গত বছরের ১ আগস্ট ঢাকা জেলায় নিবন্ধন শুরু হয়। পরে ২৭ অক্টোবর শুরু হয় নারয়ণগঞ্জ এবং গাজীপুর জেলার নিবন্ধন। আগামী ৯ ফেব্রুয়ারি থেকে দেশের বাকি ৬১ জেলার নিবন্ধন শুরু হচ্ছে।

বিজ্ঞপ্তিতে নিবন্ধনকারীর যোগ্যতায় বলা হয়েছে, নিবন্ধনকারী কর্মীর বয়স অবশ্যই ১৮ বছরের উপরে হতে হবে। তবে মধ্যপ্রাচ্যে নারী গৃহকর্মী হিসেবে যেতে ইচ্ছুকের বয়স ২৫-৪৫ বছরের মধ্যে হতে হবে। নিবন্ধনকারীর অন্তত ছয় মাসের বৈধ পাসপোর্ট এবং নিজস্ব মোবাইল থাকতে হবে। নিবন্ধনের আপডেট তথ্য মাঝে মাঝে তাকে এসএমএসের মাধ্যমে জানিয়ে দিবে কর্তৃপক্ষ।

বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, এ নিবন্ধন একটি চলমান প্রক্রিয়া। তাই নিবন্ধন শুরুর পরে যেকোনো সময় সংশ্লিষ্ট জেলা কর্মসংস্থান ও জনশক্তি দফতর বা কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে গিয়ে নিবন্ধন সম্পন্ন করা যাবে। নিবন্ধনের সময় সকল যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতা সনদ ডাটাব্যাংকে সংযোজন করতে হবে। এ নিবন্ধনের মেয়াদ হবে দুই বছর। তাই এ সময়ের মধ্যে কোনো যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতা অর্জিত হলে তা ডাটাব্যাংকে সংযোজনের সুযোগ রয়েছে। নিবন্ধনকারীর যোগ্যতার ভিত্তিতে সরকার কাজের ব্যবস্থা করবে।

তবে বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ডাটাব্যাংকে নিবন্ধন কোনোভাবেই নিবন্ধনকারীর বিদেশ যাওয়া নিশ্চিত করবে না।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার