শর্ত না মানলে যেসব ফিচার আটকে দেবে হোয়াটসঅ্যাপ

Img

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন প্রাইভেসি পলিসি না মানলেও অ্যাকাউন্ট বন্ধ হবে না। তবে এই শর্তে যারা রাজি হবেন না, তারা কয়েকটি ফিচার ব্যবহার করতে পারবেন না।

সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে এমনটাই বলেছেন হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র।

সংস্থার পক্ষে জানানো হয়েছে, ১৫ মে'র মধ্যে হোয়াটসঅ্যাপ-এর গোপনীয়তার নতুন নীতি ও শর্তাবলী না মানলে ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট ডিলিট হওয়ার চিন্তা আর নেই। তবে যারা সম্মতি দেবেন না তারা ভিডিও-অডিও কলে কথা বলতে পারলেও চ্যাট লিস্ট ব্যবহার করতে পারবেন না।

হোয়াটসঅ্যাপের মুখপাত্র বলেন, ১৫ মের পর যারা পলিসি আপডেট করবেন না তাদের অ্যাকাউন্ট ডিলিট করবে না কোম্পানি। আমরা পলিসি আপডেটের বিষয়ে আরো কয়েক সপ্তাহ গ্রাহকদের নোটিফিকেশন পাঠাব।

পলিসি আপডেটের পর গ্রাহকদের আরে‌া সুবিধা হবে বলে জানিয়েছে হোয়াটসঅ্যাপ। এমনকি ফেসবুকের সঙ্গে তাদের 'ইন্টিগ্রেশন' কাজে আসবে। যদিও প্রতিষ্ঠানের এই কথা বিশ্বাস করেননি অনেক গ্রাহক। তারা আশঙ্কা করেন, ফেসবুকের কাছে গ্রাহকদের তথ্য তুলে দেবে হোয়াটসঅ্যাপ।

এর আগে চলতি বছরের জানুয়ারিতে হালনাগাদ নিয়মকানুন ও শর্ত ঘোষণা করে হোয়াটসঅ্যাপ। প্রথমে বলা হয়েছিল যে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন শর্ত ৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১-এর মধ্যে কার্যকর করবে। নতুন প্রাইভেসি পলিসির প্রকাশের পর অনেকেই এটি নিয়ে প্রশ্ন তোলেন।

সেই সময় অনেক ব্যবহারকারী হোয়াটসঅ্যাপ ছেড়ে অন্য অ্যাপ ব্যবহার শুরু করেন। তখন পরিস্থিতির সামাল দেয়ার জন্য ১৫ মে পর্যন্ত সময় পেছায়। এ সময়ের মধ্যে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন শর্তে যদি কোনো ব্যবহারকারী সম্মতি না দেন, তবে তিনি বার্তা পাঠাতে ও গ্রহণ করতে পারবেন না বলে জানানো হয়েছিল।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার