লেবানন আ'লীগের সিনিয়র সহ সভাপতির মাতার কুলখানি অনুষ্ঠিত

Img

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ লেবানন কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহ সভাপতি ও বৃহত্তর ঢাকা প্রবাসী ঐক্য ফোরাম লেবাননের উপদেষ্টা মন্ডলির সদস্য সুফিয়া আক্তার বেবীর মাতার কুলখানি অনুষ্ঠিত হয়েছো।

লেবাননের বাংলাদেশ দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ, সামাজিক সংঘঠক, রাজনৈতিক নেত্ববৃন্দসহ সকল শ্রেণী পেশার মানুষ কোলখানিতে অংশগ্রহন করেন।

এতে অন্যান্যের মধ্যে লেবাননে নিষুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার, লেবানন আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বাবুল মুন্সি, সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান টিটু, লেবানন বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলাম মজুমদার, সাংবাদিক জসিম উদ্দীন সরকার, ওয়াসীম আকরাম, বৃহত্তর ঢাকা প্রবাসী ঐক্য ফোরামের সভাপতি হাবিবুর রহমান, শাহজালাল প্রবাসী সংগঠন লেবাননের সভাপতি শামিম আহমেদ, সাংবাদিক জুবাবের, জুয়েল রানা, মিলন খান সহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, সুফিয়া আক্তার বেবীর মাতা রেজিয়া বেগম গত ১ অক্টোবর সকাল ৭ ঘটিকায় বার্ধক্য জনিত কারণে দেশে নিজ বাড়িতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। তিনি ৮ সন্তানের জননী ছিলেন।

পূর্ববর্তী সংবাদ

ভাতে চুল পাওয়ায় স্ত্রীকে মারপিট করে মাথা ন্যাড়া, স্বামী গ্রেফতার

ভাতের মধ্যে চুল পাওয়ায় ক্ষিপ্ত হয়ে স্ত্রীকে মারপিট করে চুল কেটে মাথা ন্যাড়া করে দিয়েছে স্বামী। এ ঘটনায় স্বামী বাবুলকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার সকালে জয়পুরহাট সদর উপজেলার পুরানাপৈল ইউনিয়নের শালগ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানায়, সদরের পুরানাপৈল ইউপির শালগ্রামের দিনমজুর বেলাল হোসেনের মেয়ে আরজিনা বেগমের (২২) সঙ্গে একই গ্রামের জালাল উদ্দিনের ছেলে বাবুলের (৪০) বিয়ে হয় এক বছর আগে। এটি ছিল বাবুলের ২য় বিয়ে।

পরিবারে অভাবকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে প্রায়ই ঝগড়া লেগে থাকতো। এ অবস্থায় সোমবার সকালে ভাত রান্না করে স্বামী বাবুলকে খেতে দিলে ভাতের প্লেটে চুলের একটি টুকরা পাওয়া যায়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আরজিনা বেগমের উপর চালানো হয় নির্যাতন। মারপিট করে মাথার চুল কেটে ন্যাড়া করে দেওয়া হয়। খবর গেয়ে জয়পুরহাট থানা পুলিশ আরজিনাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

জয়পুরহাট সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত ) রায়হান হোসেন জানান, আরজিনা বেগমকে নির্যাতন করায় তার বাবা বেলাল হোসেন বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার