কেক কেটে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪১ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন ও বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে সভা করেছে লেবানন বিএনপি।

৮ সেপ্টেম্বর রবিবার বিকেলে রাজধানী বৈরুতের আলকোলার রেস্ট পেলেসে এই আয়োজন করা হয়।

লেবানন বিএনপির সভাপতি নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সহ সভাপতি আবু বক্করের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি ছিলেন, প্রধান উপদেষ্টা মফিজুল ইসলাম বাবু।

বিশেষ অতিথি ছিলেন, সাধারণ সম্পাদক মজিবুল হক মজিব, উপদেষ্টা সদস্য মানিক মোল্লা, রুহুল আমীন, আমীর হোসন কলিম, আব্দুল হালিম, সিনিয়র সহ সভাপতি জাকির হোসেন জাকির, মহিলা সম্পাদিকা জাহান আরা সাথী, সহ সভাপতি আমিনুল ইসলাম আইমান, লেবানন যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আলম, উপদেষ্টা আব্দুল খালেক তাহের সহ অনেকে।

সভার শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত পরে জাতীয় সংগীত, দলীয় সংগীত পরিবেশন করা হয় এবং খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি ও জিয়াউর রহমানের আত্মার শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়।

এছাড়া বাংলাদেশ থেকে টেলিকন্সফারেন্সে বক্তব্য রাখেন, বিএনপির চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা জয়নাল আবেদীন ফারুক।

লেবানন বিএনপির সকল নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, প্রবাসে থেকেও যে আপনারা দেশেকে ভালবেসে দেশের খবর রাখেন দলের খবর রাখেন, সাবেক তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার খবর রাখেন, এজন্য দল আপনাদের প্রতি কৃতজ্ঞ।

জয়নাল আবেদীন ফারুক আরো বলেন, দেশে মোটেই গণতন্ত্র নেই, ভোট বিহীন সরকার বিরুধী দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে শুধু মামলা হামলা চালাচ্ছে।

তিনি বলেন, আপনারা এসব নিশ্চই আবগত আছেন। যখনি দল চেয়ার পারসনের মুক্তির আন্দোলনের ডাক দিবে, আপনারা আপনাদের আত্বীয় স্বজনদের সেই আন্দোলনে একাত্বতা পোষণ করতে বলবেন। জয়নাল আবেদীন ফারুক লেবাননের সকল নেতাকর্মীদের কাছে কারাবন্দী বিএনপি চেয়ার পারসন বেগম খালেদা জিয়ার জন্য দোয়া কামনা করেন।

লেবানন বিএনপির নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্য বলেন, বর্তমান ভোটবিহীন অবৈধ স্বৈরশাসক সরকার দেশ মাতা বেগম খালেদা জিয়াকে কারাবন্দী করে, বাংলাদেশ বিএনপিকে নিরছিন্ন করার যে পায়তারা করছে তা কোনোদিন সফল হতে দেওয়া যাবে না। অবিলম্বে দেশমাতা বেগম জিয়াকে মুক্তি দিয়ে দেশে গনতন্ত্র ফিরিয়ে আনার জোর দাবি জানান। আগামীর রাষ্ট্র নায়ক তারেক রহমানকে দেশের বাইরে রেখে ও বেগম খালেদা জিয়াকে জেলে রেখে ৩০ ডিসেম্বর রাতের অন্ধকারে যে নীল নকশা নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসেছে তা দেশবাসী কখনো মেনে নেবে না। তাই দেশ বিদেশে আন্দোলন গড়ে তুলে অনির্বাচিত সরকারের পতন ঘটানো হবে বলে হুঁশিয়ারী দেন তারা।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সিনিয়র সহ সভাপতি জাকির হোসেন জাকির।

অন্যান্যদের মাঝে আরো বক্তব্য রাখেন, সহ সভাপতি আব্দুল কাদের, ওয়াসীম আকরাম, জাহাঙ্গীর হাসান সুমন, আমীর হোসেন, সিনিয়র যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহিম মতিন, দপ্তর সম্পাদক মোতালেব হোসেন সহ অনেকে।