যথাযোগ্য মর্যাদা ধর্মীয় ভাবগাম্ভীর্য ও উৎসবমূখর পরিবেশের এবং পশু কোরবানির মধ্য দিয়ে মুসলিম উম্মাহ বৃহত্তর উৎসব ঈদুল আযহা উদযাপন।

লেবানন সহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে আজ পালিত হচ্ছে ঈদুল আযহা অন্যান্য দেশের ন্যায় লেবাননে প্রবাসী বাংলাদেশীদের দ্বারা পরিচালিত ছোট বড় প্রায় অন্তত ৩০ টি ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদ মানে আনন্দ, ঈদ মানে খুশি, একথাটি বাংলাদেশে প্রচলিত থাকলেও প্রবাসীদের ক্ষেত্রে তা ব্যাতিক্রম। পরিবার পরিজন বিহীন অশ্রুসিক্ত চোখের কোণে জমা কষ্টের মাঝেও যেন ঈদের আনন্দটা সবার সাথে ভাগ করে নিতে, জামাত আদায় করে মোবাইল ফোনে কথাা বলাার মাধ্যমে পরিজনদের সাথে ভাগ করে নেন ঈদের আনন্দটা।

আজ থেকে প্রায় আড়াই হাজার বছর আগে হযরত ইব্রাহীম (আঃ) সালাম আল্লাহ তায়ালার নির্দেশ পালন করতে গিয়ে আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টি অর্জন লক্ষ্যে সকল স্নেহ-মমতা বিলীন করে দিয়ে আল্লাহ তায়লার নির্দেশে একমাত্র পুত্রসন্তানকে কোরবানি দেয়ার জন্য প্রস্তুতি শেষ হয় , তখন আল্লাহ তায়লার নির্দেশে জান্নাত থেকে মেষ পাঠিয়ে দিয়ে কুরবানী করার নির্দেশ দেন। সেই সময় থেকে দুই রাকাত নামাজ ও পশু কোরবানি প্রচলন শুরু হয় সেই ত্যাগ ও মহিমায় মহিমান্বিত হয়ে মুসলমান সমাজ আল্লাহর রাস্তায় পশু কোরবানি করেন ।

লেবাননের বিভিন্ন স্থানে প্রবাসী বাংলাদেশীরা খেলার মাঠ ও কর্মস্খলে, প্রায় ২০-৩০ টি ছোট বড় অস্থায়ী ঈদগাঁ তৈরী করে ঈদের নামাজের জামাত আদায় করেন। ঈদের জামাত আদায় হয় আইন আল রোম্মানিয়া , হামলা, শৈফাত , জুনি আলফাহাদ, টেলিফিরিক , হাইছিল্লুম , জুবাল স্পোর্টিং ক্লাব মাঠে ,ত্রিপোলি সহ বিভিন্ন স্থানে প্রবাসী বাংলাদেশিদের ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

প্রবাসী বাংলাদেশীদের সবচেয়ে বড় ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয় বৈরুতের ছালুমীতে। তবে লেবাননে মধ্যে সবচেয়ে বড় ঈদের নামাজের জামাতটি অনুষ্ঠিত হয় বৈরুতে ডাউনটাউনের আল আমিন মসজিদে, যেখানে ঈদের নামাজ আদায় করতে লেবানিজ সহ বিভিন্ন দেশেরে লাখো মুসল্লি জরো হয়।

লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকারসহ হাজারো প্রবাসী বাংলাদেশীরা ঔ মসজিদে নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে বিশ্ব মুসলিম উম্মাহর জন্য ও প্রিয় বাংলাদেশের সুখ-শান্তি সমৃদ্ধি কামনা করে বিশেষ দোয়া ও মোনাজাত করা হয়। এবং সকল ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে একে অন্যের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা ও কুশল বিনিময় করেন।

লেবাননে নিযুক্ত রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার লেবানন ও সাইপ্রাস প্রবাসীদের সহ বিশ্বের শান্তি প্রিয় সকল ধর্মপ্রান মুসলমাদের ঈদের শুছেচ্ছা জানান। ঈদ সবার জন্য বয়ে আনুক অনাবিল শান্তি, তিনি এই কামনা করেন।।