রোজার দিনে শীতল আমেজ কেমন যেনো চারদিকে,
ভেনিশ হবে এবার মনের ধূসর, কালো আর ফিকে।

দিনের শেষে খুশির নেশায়; বাতাস মাঝে স্বাদ দোলে,
খোদার কাছে এমন সময় ; চাইতে হবে হাত তোলে।

রহম বারি টুপুর-টাপুর ভিজিয়ে যাবে দশ দিনে,
ক্বোরান বুঝি পড়ার সময়, নয়লে মজা রস বিনে।

মায়ের একা রাঁধুন কাজে না হয় যেনো আজ দেরি,
তাইতো দেখি কিচেন রুমে মায়ের সাথে আজমেরী।

রোজার দিনে ক্বোরানপাতায় নূরের আলো ঝলমলে,
খোদার বাণী; নামাজ দাঁড়ায় শুনার তরে চল দলে।

নিজের মতো স্বাধীন থেকেও কাটুক বেলা সংযমে,
খুখির ঈদে নতুন জামার মাথায় কতো রং জমে।

দিনের বেলা উপোস থেকেও গোপন খুশি অন্তরে,
ক্ষণিক তরে এমন সুযোগ, না যেনো যায় মন্থরে।