রিয়াদে সিমকার্ড জালিয়াতির দায়ে তিন বাংলাদেশি গ্রেফতার

Img

রিয়াদে সিমকার্ড জালিয়াতির দায়ে তিন বাংলাদেশি গ্রেফতার  হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তাঁরা বহুদিন ধরেই অবৈধ মোবাইল সিমকার্ড বিক্রি করে আসছিল।

জানা যায় সৌদি আরবের ক্ষমতা ও বিত্তশালী সকল নাগরিক ও ক্ষমতাবানদের নামে ঐ সকল সিমকার্ডগুলি ইস্যু হত। তারপর তাদের নামের সিমকার্ড অনেক উচ্চমূল্যে সাধারণ মানুষদের কাছে বিক্রি করা হত।


এই সকল সিমকার্ড থেকেই কল দিয়ে ক্রেতারা মানুষকে নানা রকম প্রতারণার ফাঁদে ফেলাত এবং সেই সাথে ঘটাত অনেক বড় বড় ঘটনা।

সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিদের এ সকল অপরাধ নতুন কিছু নয়। তাঁরা প্রায়ই এ সকল অপরাধে জড়িয়ে থাকেন। কয়েকমাস আগেও এক প্রবাসী বাংলাদেশির ছুড়িকাঘাতে আরেক বাংলাদেশি নিহত হয়েছিল।

গত বছরের ২৮ সেপ্টেম্বর এ ঘটনা ঘটে।

সেদিন অর্থাৎ গত ২৮ সেপ্টেম্বর  রাত দেড়টার সময় নিহত জুনায়েদ আহমদের আপন মামাত ভাই ও তার শ্যালকসহ তিনজন এসে তাঁকে বাইরে ডেকে নিয়ে যায়। কোন বিষয় নিয়ে তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে তারা জুনায়েদকে মারতে শুরু করে। এক পর্যায়ে হাতে করে নিয়ে আসা ছুড়ি দিয়ে জুনায়েদ আহমদকে  ছুরিকাঘাত করে ঘটনাস্থলেই খুন করা হয়।

পূর্ববর্তী সংবাদ

শিক্ষা উপমন্ত্রীর মা করোনায় আক্রান্ত

শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেলের মা চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর স্ত্রী হাসিনা মহিউদ্দিন ও বাড়ির দুই গৃহকর্মী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।

চট্টগ্রামের সিভিল সার্জন ডা. ফজলে রাব্বি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, গত রবিবার (১০ মে) মহিউদ্দিনের ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীনের করোনা শনাক্ত হওয়ার পর তার পরদিন সোমবার (১১ মে) মহিউদ্দিনের পরিবারের চশমা হিলের বাসা থেকে ৮ জনের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। মঙ্গলবার (১২ মে) সেই ৮ জনের মধ্যে হাসিনা মহিউদ্দিন ও দুই গৃহকর্মীর করোনাভাইরাস শনাক্ত হলো। ওই দুই গৃহকর্মীর নাম শাকি এবং হারাধন।

বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন চট্টগ্রামের চশমা হিলের বাসভবনে আইসোলেশনে আছেন।

আক্রান্তরা সকলে চিকিৎসকের পরামর্শে চশমা হিলের মেয়র গলিতে বাসায় আইসোলেশনে আছেন।

অপরদিকে শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল এবং পরিবারের সদস্যরা ঢাকায় নমুনা পরীক্ষা করিয়েছেন। তাদের সবার করোনা নেগেটিভ পাওয়া গেছে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার