'রাষ্ট্রীয় মদদে' বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি হয়েছে: এফবিআই

Img

বাংলাদেশের রিজার্ভের অর্থ চুরির ঘটনাটি 'রাষ্ট্রীয় মদদে' হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ফিলিপাইনে কর্মরত এফবিআইর এক কর্মকর্তা।

বুধবার ম্যানিলায় এক সম্মেলনে তিনি এ মন্তব্য করেন। তবে কোন রাষ্ট্র এতে জড়িত তা উল্লেখ করেননি তিনি। খবর রয়টার্সের।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা এফবিআইর সদস্য ল্যামন্ত সিলার ফিলিপাইনে মার্কিন দূতাবাসে আইন বিষয়ক অ্যাটাশে হিসেবে কর্মরত। তিনি ওই রিজার্ভ চুরির বিষয়টি তদন্তেও সম্পৃক্ত।

গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউইয়র্কের হিসাব থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে চুরি হয়। ফিলিপাইনের একটি ব্যাংক হয়ে এ অর্থ চলে যায় দেশটির ক্যাসিনোর জুয়ার আসরে। বিষয়টি নিয়ে ঢাকা ও ম্যানিলার পাশাপাশি তদন্ত করছে এফবিআই। গত সপ্তাহেই ওয়াশিংটনের কর্মকর্তারা এ হ্যাকিংয়ে উত্তর কোরিয়া জড়িত বলে ইঙ্গিত দেন।

বুধবার ম্যানিলায় সাইবার সিকিউরিটি ফোরামের সম্মেলনে ল্যামন্ত সিলার বলেন, 'আমরা সবাই বাংলাদেশ ব্যাংকের অর্থ চুরির ঘটনাটি জানি। এটি রাষ্ট্রীয় মদদে হামলার একটি উদাহরণ। এ হামলা হয়েছে ব্যাংকিং খাতে।'

অর্থ চুরির ঘটনায় এফবিআই ফিলিপাইন সরকারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করছে জানিয়ে সিলার বলেন, 'এফবিআইর জন্য বিষয়টি কখনোই তামাদি হবে না। আমরা জড়িতদের বিচারের আওতায় আনতে চাই, যাতে অন্যদের দেখানো যায়— তোমরা এমন হামলা চালাতে সক্ষম হলেও, এমনকি তা রাষ্ট্রীয় মদদে হলেও শেষ পর্যন্ত পার পাওয়া যাবে না।' সূত্র: সমকাল-

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার