যে খাবারগুলো যৌন অনুভূতি কমিয়ে দেয়

Img

মানুষের খাবার গ্রহণের সঙ্গে সেক্সের সম্পর্ক বেশ গভীর। বহু আগে থেকেই চিকিৎসাবিজ্ঞান বলে আসছে যে, আমাদের দৈহিক ও মানসিক সুস্থতার ওপর যৌনশক্তি নির্ভর করে। তাই যৌনজীবনকে বিপর্যস্ত না করতে চাইলে খাবারের বিষয়ে সাবধান হওয়া প্রয়োজন।

মূলত নারী-পুরুষের যৌন আকাঙ্ক্ষা ও সক্ষমতা নির্ভর করে দৈহিক, মানসিক এবং হরমোনঘটিত বেশ কিছু বিষয়ের ওপর। এদের সঙ্গে বিশেষ কিছু খাদ্যের সরাসরি সম্পর্ক রয়েছে। মানুষের মধ্যে যৌন অনুভূতি তীব্র করে টেসটোস্টেরন নামক হরমোন। খাবারের প্রভাবে নানা ধরনের পাচক রসের উদ্ভব ঘটে যা এই হরমোনের নিঃসরণমাত্রা কমিয়ে দেয়। আর তখনই যৌন অনুভূতির অভাব ঘটতে পারে।

এখানে দেখে নিন এমনই ৫টি খাবারের তালিকা যা আপনার রোমান্টিক সময়টাকে বিষিয়ে দিতে পারে।

১. পনির : দারুণ সময়কে আরো উপভোগ্য করে তুলতে পারে সুস্বাদু পনির। কিন্তু দুধ থেকে তৈরি এই খাবারে প্রচুর পরিমাণে সিনথেটিক হরমোন উৎপন্ন হতে পারে। ফলে যৌন অনুভূতি সৃষ্টিকারী টেসটোস্টেরন হরমোনের অভাবে আপনার প্রেমপূর্ণ সময়টি নির্ঘাত নষ্ট হয়ে যাবে।

২. মিন্ট : মুখে বাজে গন্ধ দূর করতে মিন্টের তুলনা নেই। কিন্তু এটি আবার টেসটোস্টেরন হরমোন নিঃসরণে বাধা সৃষ্টি করে। তাই বিশেষ করে পুরুষদের মিন্ট থেকে দূরে থাকাই ভালো।

৩. কর্ন ফ্লেক্স : সকালে উঠে দুধ দিয়ে কর্ন ফ্লেক্স চেখে দেখতে কে না ভালোবাসেন। অবশ্য ড. জন হার্ভে কিলোগ এই খাবারটি আবিষ্কার করেছেন মানুষের মাঝে ভালোবাসা জাগিয়ে তোলার জন্যেই। কিন্তু আপনি খেলে হিতে বিপরীত হবে। চিনিবিহীন এই খাবারটি কারো মনে যৌন অনুভূতি যে সৃষ্টি করবে না তার প্রমাণ মিলেছে।

৪. কফি : এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, কফির ক্যাফেইন সেক্সের সময় দারুণ শক্তি জোগাবে। কিন্তু খুব শিগগিরই খেয়াল করবেন, এটি সেক্সের প্রতি অনীহা সৃষ্টি করবে। কারণ, ক্যাফেইন স্নায়বিক দুর্বলতা তৈরি করে।

৫. চকোলেট : তালিকায় এই খাবারটিকে দেখে অবাক লাগতে পারে। কারণ আমরা সবাই চকোলেটকে যৌন অনুভূতিপূর্ণ খাবার হিসেবেই চিনি। ড. মাইকেল হির্ট-এর মতে, এটি আপনার টেসটোস্টেরনের মাত্রা কমিয়ে দিতে পারে। তাই চকোলেট থেকেও দূরে থাকুন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার