যশোরে যুবককে বিদেশ পাঠানোর নামে প্রতারণার অভিযোগে মামলা

Img

যশোরে সজল হোসেন নামে এক যুবককে সৌদি আরবে পাঠানোর নামে ৪ লাখ টাকা গ্রহণের পর প্রতারণার অভিযোগে আদালতে মামলা হয়েছে।

রোববার সদর উপজেলার বড় বালিয়াডাঙ্গা গ্রামের জহির ইকবাল মিঠু বাদী হয়ে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এ মামলা দায়ের করেন। বিচারক মুহাম্মদ আকরাম হোসেন মামলাটি আমলে নিয়ে তদন্ত করে প্রমাণাদিসহ আগামী ১৮ এপ্রিল আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে আদেশ দিয়েছেন। অভিযুক্তরা হলো, সাতক্ষীরার তালা উপজেলার পাঁচরোখী গ্রামের শিহাব হোসেন ও তার স্ত্রী শিরিনা আক্তার।

বাদী মামলায় উল্লেখ করেছেন, আসামিরা বাদীর পূর্ব পরিচিত। সেই সুবাধে বাদীর ভাগ্নে সজল হোসেনকে সৌদি আরবে বেশি বেতনে চাকরির প্রলোভন দেখায়। আসামিদের সাথে বাদীর ৫ লাখ টাকায় চুক্তি হয়। চুক্তি অনুযায়ী ৪ লাখ টাকা অগ্রীম গ্রহণের পর ওইদিন থেকে পরবর্তী এক বছরের মধ্যে এবং সৌদি আরবে যাওয়ার পরে চাকরি হলে এক লাখ প্রদান করার কথা থাকে। বিষয়টি ২শ’ টাকার নন জুডিসিয়াল স্ট্যাম্পে চুক্তিনামা লেখার পরে আসামিরা সহি সম্পাদন করেন।

তারই ধারাবাহিকতায় ২০১৬ সালের ১৩ অক্টোবর বিকেল ৪টার দিকে বাদীর বাড়িতে বসে আসামিরা ৪ লাখ টাকা গ্রহণ করেন। কিন্তু এক বছর পার হলেও বাদীর ভাগ্নেকে সৌদি আরবে পাঠাতে না পারায় তাদের দেয়া টাকা ফেরৎ চান জহির ইকবাল মিঠু। কিন্তু আজ না কাল করে ঘুরানোর পর সর্বশেষ গত ২৫ জানুয়ারি বিকেল ৩ টার দিকে আসামিদের বাদী কৌশলে তার বাড়িতে ডেকে আনেন।

এসময় স্থানীয় লোকজনের সামনে তাদের দেয়া টাকা ফেরৎ চাইলে উত্তেজিত স্বরে টাকা ফেরৎ দিবে না বলে চলে যায়। পরে স্থানীয়ভাবে মিমাংসার চেষ্টা ব্যর্থ হয়ে এদিন আদালতে এ মামলা দায়ের করা হয়। তবে বিচারক তদন্ত পূর্বক প্রমাণাদি প্রদান সাপেক্ষে আগামী ১৮ এপ্রির আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আদেশ দেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার