মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় মাকে পুড়িয়ে হত্যা

Img

শেরপুরের শ্রীবরদীতে মোটরসাইকেল কিনে না দেয়ায় মাকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ উঠেছে ছেলের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত ছেলে আবু হানিফকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

শনিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে শ্রীবরদী পৌর শহরের তাঁতিহাটি পশ্চিমপাড়া থেকে হানিফকে গ্রেফতার করা হয়।

নিহত হুনুফা বেগম একই এলাকার সদাগর আলী সরদারের স্ত্রী।

স্থানীয়রা জানায়, সদাগর আলী সরদারের এক ছেলে ও এক মেয়ে। এরমধ্যে হানিফ সবার বড়। কিছুদিন ধরে মায়ের কাছে মোটরসাইকেল কিনে দেয়ার বায়না ধরে আসছিল হানিফ। এতে রাজি না হওয়ায় ১১ অক্টোবর মা হুনুফা বেগমের শরীরে পেট্রল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয় ছেলে। পরে স্থানীয়রা দগ্ধ হুনুফাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে শেরপুর সদর হাসপাতালে নিলে চিকিৎসকরা ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠান। সেখানেও হুনুফার অবস্থার অবনতি ঘটতে থাকে। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। সেখানে শুক্রবার সকালে হুনুফা মারা যান।

শ্রীবরদী থানার ওসি রুহুল আমিন তালুকদার জানান, এ ঘটনায় শনিবার আবু হানিফের বিরুদ্ধে মামলা করেন হুনুফা বেগমের বড় ভাই শেরপুর শহরের চকপাঠক এলাকার বাসিন্দা দুলাল মিয়া। পরে আবু হানিফকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার