‘আমার ছেলে (আকবর আলি) জয় নিয়ে দেশে ফিরবে এই পণ করে খেলতে গিয়েছিল। ছেলে আমার অদম্য। ওর ইচ্ছে পূর্ণ হয়েছে। সাথে আমরা একটা বিশ্বকাপ পেলাম।’

চোখের পানি ফেলতে ফেলতে এভাবেই কথাগুলো বলছিলেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের অধিনায়ক আকবর আলির মা সাহিদা আক্তার।

রোববার (৯ ফেব্রুয়ারি) দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে ফাইনালে ভারতকে হারিয়ে বাংলাদেশের অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিশ্বকাপ জয়ের পর নিজ বাড়িতে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন।

আকবরের মা সাহিদা আক্তার বলেন, ‘আকবর আমার দোয়া নিয়ে খেলতে গেছে। আল্লাহর রহমতে সে দেশের মুখ বিশ্বে উজ্জ্বল করেছে। তার এ জয় পুরো দেশবাসীর।’

এদিকে, টিভির পর্দায় সারাক্ষণ তাকিয়ে থাকা আকবরের বাবা মোস্তফা হাউমাউ করে কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘আমি কান্না থামাতে পারছি না। এ কান্না খুশির কান্না। আল্লাহ তার ওপর রহমত করেছেন বলেই আজ আকবর পুরো বিশ্বে দেশের নাম উজ্জ্বল করেছে।’

এ সময় তিনি সবার কাছে তার ছেলের জন্য দোয়া চেয়ে বলেন, ‘আমার ছেলে স্বপ্ন দেখত, দেশের হয়ে খেলবে। সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে। ওর ইচ্ছে ছিল জয় ছিনিয়ে আনবে। দৃঢ় মনোবলে সেই স্বপ্ন পূরণ করেছে।’

বাংলাদেশ দলের বিজয় নিশ্চিত হওয়ার আগ থেকেই আকবরের বাড়ি রংপুরের পশ্চিম জুম্মাপাড়ায় সংবাদকর্মীসহ অসংখ্য শুভাকাঙ্ক্ষীর ঢল নামে। পরে বিজয় আনন্দে প্রকম্পিত হয়ে ওঠে বাড়িসহ পুরো এলাকা। জয় উৎসবে রংপুরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আনন্দ মিছিল এসে তার বাড়ির সামনে যুক্ত হয়।