মালয়েশিয়া কারাবন্দী হাজার হাজার বিদেশিদের শর্ত সাপেক্ষে বৈধকরণ পরিকল্পনা

Img

মালয়েশিয়ায় বাংলাদেশী অভিবাসীসহ বিভিন্ন দেশের হাজার হাজার অভিবাসী ডিটেনশন ক্যাম্পে আটক রয়েছেন।  যাদেরকে দেশটিতে অবৈধভাবে বসবাস ও  বিভিন্ন অপরাধ আটক করেছে নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য। শর্ত সাপেক্ষে তাদেরকে বিভিন্ন খাতে নিয়োগ যেতে পারে। এর জন্য সংশ্লিষ্ট নিয়োগকারীগণ ডিটেনশন ক্যাম্পে বন্দীদের প্রত্যাবর্তনের খরচ বহন করতে হবে। তাহলে কারাবন্দীদের বৈধকরণের চুড়ান্ত প্রস্তাব মন্ত্রী সভায় উত্থাপন করা হবে। 

বৃহস্পতিবার (৩ ডিসেম্বর) মালয়েশিয়ার স্বরাষ্ট্র ও মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী পর্যায়ের এক যৌথ বৈঠকে এসব কথা বলেন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী দাতোক সেরী হামজা জয়নুদ্দিন।

এসময় মানবসম্পদ মন্ত্রী এম সারাভানান ও উপস্থিত ছিলেন। 

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী হামজা জয়নুদ্দিন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত  বৈঠকে বলা হয়, বড় বড় কোম্পানি গুলো যাদের ব্যাপক শ্রমিক সংকট রয়েছে তারা চাইলে ডিটেনশন ক্যাম্পে আটক বিদেশিদের নিয়োগ দিতে পারে। কিন্তু তার আগে শর্ত হলো তাদের যতজন শ্রমিক প্রয়োজন ততজন শ্রমিকের মাথাপিছু ডিটেনশন ক্যাম্পে যে আটক রয়েছে তাদের প্রত্যাবর্তনের খরচ বহন করতে হবে। যদি এ শর্তে নিয়োগদাতারা রাজি থাকেন তাহলে এই প্রস্তাবটি শ্রীঘ্রই মন্ত্রীসভায় বিলটি উত্থাপন করা হবে।

তবে কারাবন্দী এসব বিদেশিদের মধ্যে প্রায় ১৫ শতাংশ  কর্মক্ষম রয়েছে। যারা অসুস্থ কিংবা কাজ করতে অক্ষম তাদেরকে ও নিজ দেশে প্রত্যাবর্তন করা হবে।  তাদের কে আটক করা হয়েছে তাদের নিজ নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য কারন তাদের প্রত্যেকের পরিবার রয়েছে। বৈঠকে আরো বলা হয়,  এটা একটা উত্তম পন্থা যে করোনার কারনে দীর্ঘ সময় বন্দীদের একটি ইতিবাচক সমাধান হতে পারে। যা কি না উভয়পক্ষ উপকৃত হবে। বর্তমান বিভিন্ন সেক্টর বিশেষ করে পামতেল শিল্প, প্লানটেশন, কনস্ট্রাকশন ও কৃষি খাতে যে শ্রমিক সংকট রয়েছে সেগুলো তে তাদের কাজে লাগাতে পারে। ডিটেনশন ক্যাম্প থেকে অথবা বিদেশ থেকে নতুন করে শ্রমিক আমদানি করে এ সংকট মোকাবেলা করতে পারেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার