​মালয়েশিয়া বিদেশী শ্রমিকদের প্রবেশের জন্য প্রস্তুত আছে বলে জানালেন মানব সম্পদ মন্ত্রী। মালয়েশিয়ার শ্রমবাজারের বিদেশি শ্রমিকদের নিয়োগের জন্য আমরা প্রস্তুত আছি তবে এটা এখন স্বারাস্ট্র মন্ত্রলয়ের হাতে। আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জন্য অপেক্ষা করছি।শনিবার ইপোর ডায়ালাইসিস কেন্দ্রে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে একথা জানান।

মানব সম্পদ মন্ত্রী এম কুলা সেগারান আরো বলেন, বিদেশি শ্রমিকদের আনার জন্য মন্ত্রিসভায় দেওয়া হয়েছে এবং এব্যাপারে তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। তবে এব্যাপারে আমরা স্বারাস্ট্র মন্ত্রলয়ের সাথে আলোচনা করবো।

তিনি আরো বলেন, গত বুধবার দুর্নীতি দমন কমিশনার লাথিফা কোয়া যে পরামর্শ দিয়েছেন' বিদেশি শ্রমিকদের প্রক্রিয়াজাত করণের বিষয়ে বলেছেন, এটা মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়কে দেওয়া উচিত। সম্প্রতি বিভিন্ন দেশের বিদেশি শ্রমিকদের মালয়েশিয়ায় আনার ব্যাপারে দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে মালয়েশিয়ার দুর্নীতি দমন কমিশনের পক্ষ থেকে তদন্ত করা হচ্ছে।

বিদেশি শ্রমিকদের নেওয়ার ব্যাপারে কোনো প্রকার দুর্নীতির আশ্রয় যাতে না না হয় সে ব্যাপারে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন মাহাথির মোহাম্মদের সরকার। একাধিক সূত্র জানায়, বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক রপ্তানিতে অতিরিক্ত অভিবাসন ব্যয় মূল সমস্যা হয়ে দেখা দিয়েছে।

এ ব্যাপারে মানবসম্পদ মন্ত্রণালয়ের একাধিকবার জানানো হয়েছে, বাংলাদেশ থেকে অধিকাংশ শ্রমিক এদেশে তাদের জমিজমা এবং সুদের টাকা গ্রহণ করে সাড়ে তিন থেকে চার লাখ টাকার বিনিময় এদেশে আসে। দেশে আসার পরে কাঙ্খিত বেতন না পেয়ে তারা হতাশায় নিমজ্জিত হয় এবং শেষ পর্যন্ত অবৈধ হয়ে যায়। যদি বাংলাদেশ থেকে কম পয়সায় শ্রমিক রপ্তানি করে তাহলে বাংলাদেশী শ্রমিকেরা আর অবৈধ হবে না। 

উল্লেখ্য চলতি মাসের ২৪ ও ২৫ নভেম্বর মালয়েশিয়ার মানব সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নেতৃত্বে বাংলাদেশে যাওয়ার কথা রয়েছে। এদিকে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক রপ্তানির ক্ষেত্রে কোনো প্রকার সিন্ডিকেট হবে না বলে জানিয়েছেন প্রবাস কল্লান মন্ত্রী