মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে ইন্টারন্যাশনাল ইয়ুথ পিস অ্যাম্বাসেডর প্রোগ্রাম-২০১৯ (জিওয়াইপিএ) সম্মেলনটি জমকালো অনুষ্ঠানের মার্ধমে সম্পন্ন হয়েছে।​ গত ২৮ অগাস্ট থেকে শুরু হওয়া পাঁচ দিনের এ আন্তর্জাতিক যুব শান্তি প্রতিনিধি সম্মেলনটি শেষ হয় ১লা সেপ্টেম্বর।

​মালদ্বীপের রাজধানী মালেতে দেশটির যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় ও এনজিও সংস্থা রাফির উদ্যোগে মালদ্বীপ ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত হয় আন্তর্জাতিক যুব শান্তি প্রতিনিধি সম্মেলন। সম্মেলনে বিশ্বের ৩০টি দেশের প্রায় ২০০ জন তরুণ প্রতিনিধি অনুষ্ঠানে যোগদেন। এই সম্মেলনে বাংলাদেশ থেকে শারমিন লীনার নেতৃত্বে ৯ সদস্যের একটি প্রতিনিধির দল অংশগ্রহণ করেন।

​পাঁচ দিনকার এই সম্মলনে বিশ্বের প্রায় ২০০জন তরুণ প্রতিনিধিগন মালদ্বীপের রাজধানী মালের হুলহু সেল্ট্রাল পার্কে হেটে হেটে তাদের নিজ নিজ দেশের জাতীয় পতাকা তুলে ধরেন। সেই সাথে তরুণ প্রতিনিধিদের নিজ নিজ দেশে কিভাবে শান্তি প্রতিষ্ঠা করা যায় এই সম্পর্কে তাদেরকে বিশেষ ট্রেনিং দেওয়া হয়।

বাংলাদেশের শারমিন নাহার লীনা উপস্থিত বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আগত অতিথি ,সাংবাদিক ,তরুণদের সামনে বক্তব্যের মার্ধমে তার চিন্তা চেতনা তুলে ধরেন। অতিথিবৃন্দ মনোযোগ সহকারে তা শুনেন।সুন্দর উপস্থাপনার জন্য তিনি প্রশংসিত হন। সেই সাথে তাকে গ্লোবাল পিস কান্ট্রি লিডার অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করেন অনুষ্ঠান কতৃপক্ষ ।

​শারমিন লীনা বাংলাদেশে ক্ষুধা ও দারিদ্রমুক্ত সমাজ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। সেই সাথে যুব সমাজকে সামাজিক
কাজে সম্পৃক্ত করে সৃজনশীল কাজের প্রতি উৎসাহ প্রদান করেন। গ্লোবাল পিস কান্ট্রি লিডার অ্যাওয়ার্ড’ প্রাপ্তিতে শারমিন লীনা বলেন, সত্যিই দারুণ একটি অর্জন এটি । বাংলাদেশের নাম বহির্বিশ্বে উজ্জ্বল করতে পেরে আমি আনন্দিত ও গর্বিত । এভাবে সারাবিশ্ব যেন বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে পারি সেই জন্য সকলের দোয়া, সমর্থন এবং ভালোবাসা কামনা করছেন তিনি। পুরুস্কার অর্জন বড় বিষয় নয় সমাজে কাজ করাটা বড়
বিষয়।

পুরস্কারটা হল উৎসাহিত করা। আমার এই সম্মাননা আমার কাজকে আরো বহুগুন সামনে এগিয়ে নিয়ে যাবে। শারমিন নাহার লীনা এর আগে ভারত, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, ভুটান, শ্রীলঙ্কা, নেপাল ও থাইল্যান্ডে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশ নিয়েছেন।

​তিনি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বাংলা সাহিত্যে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পর সংবাদ উপস্থাপক হিসেবে নিজের ক্যারিয়ার গড়ে তোলেন। মাগুরার সন্তান শারমিন নাহার লীনা বাংলাদেশের সবচেয়ে
জনপ্রিয় টেলিভিশন চ্যানেল এনটিভির এক সংবাদ উপস্থাপক। বাংলাদেশ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে শিক্ষকতা করেছেন ।

কাজ করেছেন ইন্ডিয়ান ইমপোর্টার্স চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রির যোগাযোগ উপদেষ্টা হিসেবেও। বর্তমানে তিনি আন্তর্জাতিক যুব কমিটির বাংলাদেশের ডেপুটি অ্যাম্বাসেডর হিসাবে দায়িত্ব পালন করছেন। সেই সাথে তিনি এমএম গ্রুপ অফ কোম্পানির ওভারসিজ কমিউনিকেশন অফিসার হিসাবে কর্মরত রয়েছেন।​