মাদারীপুরের ডিসি ড. রহিমাসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ২ মামলা

Img

মাদারীপুরের জেলা প্রশাসক (ডিসি) ড. রহিমা খাতুনসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে পৃথক দুটি মামলা দায়ের হয়েছে।

মামলায় দুই ঠিকাদার ব্যবসায়ীর মাটি ভরাটের কাজে ব্যবহৃত ৪টি ড্রেজার মেশিন পুড়িয়ে ফেলা ও ৮টি অন্যান্য মেশিন ভাঙচুরের অভিযোগ আনা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে শিবচর উপজেলার ডাইয়ারচার গ্রামের মনির সরদার এবং সাদুল্লা বেপারীকান্দি গ্রামের সরোয়ার বেপারী বাদী হয়ে জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতে মামলা দুটি দায়ের করেন।

এরপর জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম আদালতের বিচারক মোহাম্মদ হোসেন মামলা গ্রহণ করে শুনানি শেষে এ বিষয়ে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশনের (পিবিআই) কাছে তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার আদেশ দিয়েছেন।

ডিসি ড. রহিমা ছাড়াও মামলা দুটির অপর ৫ আসামি হলেন- মাদারীপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. জাকির হোসেন বাচ্চু, শিবচরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. রফিকুল ইসলাম, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা ইউসুফ হোসেন, সার্ভেয়ার মো. রাসেল হোসেন ও এমএলএসএস বাবুল মিয়া।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, মামলা দায়েরকারী দুই বাদীর ঠিকাদারি ব্যবসা পরিচালনার জন্য স্থানীয় চৌধুরী আনিছউদ্দিন ওয়াকফ এস্টেটের মাটি ভরাট করে উন্নয়ন কাজ করার জন্য চারটি ড্রেজার মেশিন দিয়ে কাজ শুরু করেন।

এরইমধ্যে গেল ২৮ আগস্ট দুপুর ১টার দিকে ওয়াকফ এস্টেটের ভূমিতে গিয়ে বাদীদের ৪টি ড্রেজার মেশিন আগুন দিয়ে পুড়িয়ে এবং আরও ৮টি মেশিন ভাঙচুর করে লাখ লাখ টাকার করা হয় বলে এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

পূর্ববর্তী সংবাদ

শেষকৃত্য সম্পন্ন হয়েছে প্রণব মুখার্জির

ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির শেষকৃত্য লোদী রোড মহাশ্মশানে পূর্ণ সামরিক মর্যাদায় সম্পন্ন হয়েছে। কোভিড-১৯ প্রোটোকলের কারণে তার মরদেহ সামরিক সাঁজোয়া গাড়ির বদলে ভ্যানে করে নেওয়া হয়। শেষকৃত্যের আগে মঙ্গলবার সকালে দিল্লির রাজাজি মর্গে তার বাসভবনে রাখা হয়েছিল তার মরদেহ। এ সময় তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানান রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ ও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

প্রণব মুখার্জির রাজাজি রোডের বাসভবনে শ্রদ্ধা জানানোর জন্য রাখা হয় তার একটি ছবি। সেই ছবিতেই ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান সবাই।

রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও সাবেক রাষ্ট্রপতিকে শ্রদ্ধা জানান উপ রাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ডু, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ, লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লা, চিফ অব ডিফেন্স স্টাফ বিপিন রাওয়াত, সস্ত্রীক সাবেক প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ, কংগ্রেসের লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী, কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী, দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালসহ বিভিন্ন দলের নেতাকর্মী ও সর্বস্তরের মানুষ।

ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, প্রণব মুখার্জির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ৩১ আগস্ট থেকে ৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাষ্ট্রীয় শোক পালন করা হবে। এ সময় পতাকা অর্ধনমিত রাখা হবে এবং আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো বিনোদনমূলক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যাবে না।

গত ৯ আগস্ট রাতে দিল্লির বাসভবনে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান তিনি। গত ১০ আগস্ট দিল্লির সেনা হাসপাতালে প্রণব মুখার্জিকে ভর্তি করা হয়েছিল। পরীক্ষার সময় দেখা গিয়েছিল, তার মস্তিষ্কে রক্ত জমাট বেঁধে আছে। জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করা হয়েছিল। তার করোনা রিপোর্টও পজিটিভ এসেছিল।

অস্ত্রোপচারের পর থেকেই ভেন্টিলেশনে ছিলেন তিনি। কখনো কখনো শারীরিক অবস্থার উন্নতির খবর মিললেও কখনো কখনো তার শারীরিক অবস্থা আরও জটিল হয়েছে। মূত্রাশয় সংক্রান্ত সমস্যা এবং ফুসফুসে সংক্রমণও ধরা পড়েছিল তার। কিন্তু যাবতীয় লড়াই শেষে হাসপাতালে ভর্তির ২২ দিনের মাথায় ৩১ আগস্ট বিকেলে দিল্লির সেনা হাসপাতালে মারা যান তিনি।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার