মহানবী (সা.) কে অবমাননা: ফ্রান্সের সকল পণ্য বর্জন কুয়েতের

Img

বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে ব্যঙ্গ করে আঁকা কার্টুনিস্ট প্যারিসের স্কুল শিক্ষক স্যামুয়েল প্যাটিকে মরণোত্তর 'লিজিয়ন অফ অনার' দিলেন প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোঁ। এবং আরও বলেছেন,'আমরা কার্টুন ত্যাগ করবনা। প্যাটী ইউরোপীয় গণতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ মূল্যবোধ রক্ষা করতে গিয়ে জীবন দিয়েছেন। তাই তাকে ফ্রান্সের সর্বোচ্চ সম্মানে ভূষিত করা হল।'

ফ্রান্সে নবীজি হযরত মুহাম্মদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের অবমাননা ও তা থেকে সরে না আসার ব্যাপারে দেশটির প্রেসিডেন্ট ম্যাক্রোর দম্ভোক্তি, দেয়ালে দেয়ালে অবমাননাকর সেই কার্টুন প্রদর্শনের পর ফ্রান্সের সকল পণ্য বর্জন করেছে কুয়েত। খবর আল জাজিরার।

কুয়েতের সামাজিক মাধ্যমগুলোতেও ফ্রান্সের পণ্য বর্জন করতে সবাইকে আহ্বান জানানো হয়েছে।

ফরাসি পণ্য বর্জন করুন, আমাদের নবীর শানের বিরুদ্ধে যারা কথা বলবে তাদের সাথে আমাদের কোন সম্পর্ক নেই, এজাতীয় বিভিন্ন হ্যাশ ট্যাগ ব্যবহার করা হয়েছে দেশটির সামাজিক মাধ্যমে।

বাংলাদেশসহ বিভিন্ন মুসলিম দেশেও ফ্রান্সের পণ্য বর্জনের দাবি জোরালো হচ্ছে বলে জানিয়েছে কাতার ভিত্তিক গণমাধ্যম আল জাজিরা।

সম্প্রতি ফ্রান্সে ক্লাসে আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের কারনে স্যামুয়েল প্যাটি নামের এক শিক্ষককে শিরশ্ছেদ করে হত্যা করা হয়েছে। ঐ শিক্ষককে সম্মান জানাতে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাক্রোঁ বলেছেন যে ফ্রান্স কার্টুন প্রদর্শন বন্ধ রাখবে না। সেই সম্মানপ্রদর্শনেরই অংশ হিসেবেই এ অভিশপ্ত কাজ করছে ফ্রান্সের প্রশাসন।

ফ্রান্সের ওসিটনেই এলাকার সভাপতি ক্যারোল ডেলগা বুধবার ট্যুইটারে কার্টুন দেখানোর ঘোষণা করেন।তিনি বলেন, শিক্ষক স্যামুয়েলকে শ্রদ্ধাঞ্জলি দেওয়ার জন্য পয়গম্বর মোহম্মদের বিতর্কিত কার্টুন দেখানো হবে।

এই ঘটনার জেরে এর আগে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসের আইফেল টাওয়ারের কাছে হিজাব পরা দুই মুসলিম নারীকে ছুরিকাঘাত করেছেন দুই ফরাসি নারী। তারা ওই মুসলিম দুই নারীর হিজাব খুলে ফেলার অপচেষ্টাও করেছে এবং বর্ণবাদমূলক গালিগালাজ করেছে বলে জানা গেছে আল জাজিরার খবরে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার