ভারতে ৬ বছর জেল খেটে দেশে ফিরল দুই যুবতী

Img

ভারতে ৬ বছর জেল খেটে বেনাপোল চেকপোষ্ট দিয়ে দেশে ফিরেছে দুই বাংলাদেশী যুবতী। মঙ্গলবার ভারতীয় ইমিগ্রেশন পুলিশ বিশেষ ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে বেনাপোল ইমিগ্রেশন পুলিশ এর কাছে হস্তান্তর করেন।

ফেরত আসা ওই দুই যুবতী হলো যশোর জেলার অভয়নগর উপজেলার বাসরিয়া গ্রামের মোঃ শহিদ বিশ্বাসের মেয়ে মরিয়ম খাতুন (২৫) ও সিরাজগঞ্জ জেলার উল্লাপাড়া গ্রামের বিল্লালের মেয়ে মৌসুমি খাতুন।

বেনাপোল চেকপোষ্ট ইমিগ্রেশন এর ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুজিবুর রহমান বলেন ফেরত আসা দুই যুবতীকে বেনাপোল ইমিগ্রেশন এর আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে বেনাপোল পোর্ট থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। সেখান থেকে আইনি সহায়তার জন্য ১৪দিন কোয়ারেন্টাইন শেষে জাস্টিস এন্ড কেয়ার নামে একটি এনজিও সংস্থা গ্রহন করবে।

ফেরত আসা যুবতীদের গ্রহনকারী এনজিও সংস্থা জাস্টিস এন্ড কেয়ারের যশোর শাখার ফিল্ড অফিসার রোকেয়া খাতুন জানান,ভাল কাজের প্রলোভনে দালাল চক্রের খপ্পরে পড়ে ঐ কিশোরীরা ভারতে গিয়ে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে। এসময় পাচারকারীরা তাদের ভাল কাজ না দিয়ে মোম্বাই শহরে ঝুকি পূর্ণ কাজে ব্যবহার করে।

খবর পেয়ে ভারতীয় পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাদের উদ্ধার করে। পরে অবৈধ অনুপ্রবেশ আইনে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করে। সেখান থেকে ভারতীয় মোম্বাই শহরে রিমান্ড গায়ঘাট পাটনার নমে একটি এনজিও সংস্থা তাদের ছাড়িয়ে নিজেদের হেফাজতে রাখে।

সেখানে ৬ বছর থাকার পর দুই দেশের উচ্ছ পর্যায়ে যোগাযোগের মাধ্যে তারা দেশে ফিরেছে। বেনাপোল পোর্ট থানা ওসি মামুন খান বলেন ট্রাভেল পারমিটের মাধ্যেমে ফেরত আসা যুবতীদের ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইন শেষে সংশ্লিষ্ট এনজিও সংস্থার কাছে তুলে দেওয়া হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার