বড় বোনের মোবাইলে ছোট বোনের নগ্ন ছবি পাঠালো যুবক, অতঃপর...

Img

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুর উপজেলায় এক তরুণীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে মোবাইল ফোনে নগ্ন ছবি তুলে পরিবারের কাছে টাকা দাবি করেছে সুয়েবুর রহমান মুন্না নামে এক যুবক।

এ ঘটনায় অভিযুক্ত সুয়েবুর রহমান মুন্নাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তার কাছ থেকে তরুণীর নগ্ন ছবি সংবলিত মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২২ সেপ্টেম্বর) গ্রেফতারকৃত যুবককে সুনামগঞ্জ জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

মামলার বিবরণ থেকে জানা গেছে, ২০১৫ সালে বিদ্যালয় থেকে বাড়ি ফেরার পথে ইসহাকপুর পশ্চিমপাড়া গ্রামের জিয়াউর রহমানের ছেলে সুয়েবুর রহমান মুন্না উপজেলার সৈয়দপুর শাহারপাড়া ইউনিয়নের এক মেয়েকে (২১) অটোরিকশা দিয়ে তুলে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যায়। দুই-তিন ঘণ্টা পর তাকে বাড়ির সামনে রেখে চলে যায়।

ঘটনার এক সপ্তাহ পর সুয়েবুর রহমান মেয়েটির বড় বোনের মোবাইল ফোনে তরুণীর একটি নগ্ন ছবি পাঠায় এবং টাকা দাবি করে। মেয়েটির পরিবার লোকলজ্জার ভয়ে ২০ হাজার টাকা দিয়ে ছবিটি ফোন থেকে মুছে ফেলার দফারফা করে।

৫ বছর পর আবারও মেয়েটির বোনের মোবাইলে ফোন করে টাকা দাবি করে সুয়েবুর। এতে তরুণীর পরিবার রাজি না হওয়ায় ১০ সেপ্টেম্বর সিলেট থেকে অটোরিকশায় বাড়ি ফেরার পথে পরিবারের সঙ্গে মেয়েটিকে দেখে গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি ও ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে দেয়ার হুমকি দেয় ওই যুবক।

এ ঘটনায় ২০ সেপ্টেম্বর তরুণী নিজে বাদী হয়ে যুবকের বিরুদ্ধে পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করে।

জগন্নাথপুর থানার এসআই রাজিব রহমান জানান, মেয়েটির অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বখাটে যুবককে গ্রেফতার করে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। নগ্ন ছবি সংবলিত মোবাইল ফোনটি উদ্ধার করা হয়েছে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার