ব্রাহ্মণবাড়ীয়ায় ট্যাঙ্ক লরি থেকে যুবকের লাশ উদ্ধার

Img

জ্বালানী তেলবাহী লরির ট্যাঙ্ক পরিষ্কার করতে গিয়ে সোহেল মিয়া (২৪) নামে এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছে।

আজ বুধবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়ীয়া জেলা সদর পৌ রশহরের মেড্ডা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত সোহেল মিয়া সদর উপজেলার ঘাটুরা এলাকার মৃত এলাহী খন্দকারের পুত্র বলে জানা গেছে। সোহেল ওই লরির চালকের হেলপার হিসেবে কাজ করতেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানা পুলিশের ১নং ফাঁড়ির পরিদর্শক (ইন্সপেক্টর) আতিকুর রহমান। তিনি জানান, সকালে এস.রহমান ফিলিং স্টেশনের একটি জ্বালানী তেলবাহী লরির ট্যাঙ্কের ভেতরে ঢুকে পরিষ্কার করার সময় বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে সোহেলের মৃত্যু হয়।

সদর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে আনার আগেই ওই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে ট্যাঙ্কের ভেতরে থাকা জ্বালানী তেলের বিষাক্ত গ্যাসে আক্রান্ত হয়েই তার মৃত্যু হতে পারে। ময়নাতদন্তের পরই মৃত্যুর সঠিক কারন সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া যাবে।

পূর্ববর্তী সংবাদ

ফেনীতে গুলিতে দুই মাদক ব্যবসায়ী নিহত

ফেনীর দাগনভূঁঞা উপজেলায় মাদক ব্যবসায়ীদের সঙ্গে র‌্যাব-৭ এর একটি আভিযানিক দলের গুলি বিনিময়ের ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে দুইজন মাদক ব্যবসায়ীর গুলিবিদ্ধ লাশ, ১টি ওয়ান শুটারগান ও ১৩ রাউন্ড গুলি উদ্ধার এবং আনুমানিক ২৫০ কেজি গাঁজাসহ ১টি কাভার্ড ভ্যান জব্দ করেছে র‌্যাব-৭। ফেনী-মাইজদী আঞ্চলিক মহাসড়কের সিলোনীয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সূত্র জানায়, ফেনী সদরের ধর্মপুরের একটি দল মাদক বহন করে নোয়াখালীর দিকে যাচ্ছিল- এমন খবরের ভিত্তিতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এতে নিহতদের নাম আসাদ ও এনামুল হক আখন্দ বলে জানা গেছে। তারা মাদারিপুরের নাগরিক বলে জানা যায়।

র‌্যাব-৭ এর ফেনী ক্যাম্প কমান্ডার শাফায়াত জামিল ফাহিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। বিস্তারিত বিবরণ পরে জানাবেন বলে তিনি জানান।

সূত্র মতে, সোমবার রাত সাড়ে ১২টার দিকে চট্টগ্রাম থেকে আসা র‌্যাবের একটি দলের সঙ্গে দাগনভূঁঞায় কথিত মাদক কারবারিদের সঙ্গে গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটে। পরে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে ফেনী সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার