বিনামূল্যে খাবার খেতেই পুরুষসঙ্গীর সঙ্গে ডেটিংয়ে যান নারীরা

Img

বিনামূল্যে খাবার খেতেই পুরুষসঙ্গীর সঙ্গে ডেটিংয়ে যান নারীরা। একটি সাম্প্রতিক সমীক্ষা প্রতিবেদনে এমনই চাঞ্চল্যকর তথ্য সামনে নিয়ে আসা হয়েছে। যুক্তরাষবট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার আজুসা প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়া-মার্সড এই সমীক্ষা চালিয়েছে। 

ওই সমীক্ষা প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রতি ৪ জনের মধ্যে ১ জন নারীই এমনটা করে থাকেন। পুরুষসঙ্গীর সঙ্গে বাইরে ঘুরতে যাচ্ছেন এমন অনেক নারীই কোনোধরনের সম্পর্কের টানে নয়, বরং শুধুমাত্র বিনামূল্যে খাবার খেতে যান। আর এমন অভ্যাসকে 'ফুডি কল' নাম দেওয়া হয়েছে। এ ধরনের অভ্যাস রয়েছে অনেক নারীরই। 

সমীক্ষায় দেখা গেছে, ৩৩ শতাংশের মধ্যে ২৩ শতাংশ মহিলাই এই 'ফুডি কল' এ অভ্যস্ত। এটা নিয়ে তাদের মনে কোনো ধরনেরে  হিনমন্যতাও কাজ করে না। তারা মনে করছেন, এ ধরণের অভ্যাসের মধ্যে কোনও লজ্জা নেই। তাই তারা নির্দিধায় পুরুষসঙ্গীর সঙ্গে বিনামূল্যে খেতে ডেটিংয়ে যাচ্ছেন।  অনেকে আবার এই ধরণের বদভ্যাসে বিশ্বাসী না হয়েও যাচ্ছেন 'ফুডি কল'য়ে। 

- সূত্র: নিউজ এইটিন
পূর্ববর্তী সংবাদ

প্রয়োজন ছাড়া প্রসূতি মায়ের সিজার বন্ধে হাইকোর্টে রিট

প্রয়োজন ছাড়া প্রসূতি মায়ের সিজার কার্যক্রম বন্ধে যাবতীয় নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। আজ
মঙ্গলবার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় রিটটি করেন ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমন।

পরে তিনি সাংবাদিকদের জানান, আবেদনটি বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের হাইকোর্ট বেঞ্চে শুনানির জন্য উপস্থাপন করা হবে।

ব্যারিস্টার সুমন বলেন, ‘সম্প্রতি আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা সেভ দ্য চিলড্রেন বাংলাদেশে অপ্রয়োজনীয় সিজারের ওপর একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। এতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে গত দুবছরে শিশু জন্মের ক্ষেত্রে সিজারিয়ানের হার বেড়েছে ৫১ শতাংশ।  

তিনি আরো বলেন, প্রতিবেদনে এ সংক্রান্ত তথ্য প্রকাশ করে বিষয়টিকে অপ্রয়োজনীয় অস্ত্রোপচার উল্লেখ করা হয়েছে। তাই প্রতিবেদনটি সংযুক্ত করে হাইকোর্টে রিটটি করা হয়েছে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার