বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে পিতা পুত্রের মৃত্যু

Img

ভোলার চরফ্যাশনের মাদ্রাজ ইউনিয়ের ৮ নং ওয়ার্ডে মিয়াজানপুর গ্রামে পিতা-পুত্রের মৃত্যু হয়েছে। 
আজ রবিবার (২৩শে মার্চ) সন্ধ্যায় মরিচ খেতে পানি দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এ ঘটনা ঘঠে। এরা হলেন- পুত্র আঃ গনি(৩৫), পিতা-আঃ খালেক সরদার (৭০)।

নিহতের স্বজনরা জানান, সন্ধ্যায় বৈদ্যুতিক মোটর দিয়ে মরিচ খেতে পানি দেয়ার সময় মোটরের ছেড়া তারে জড়িয়ে পিতা ও পুত্র বিদ্যুৎ স্পৃষ্ট হয়। এসময় স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

চরফ্যাশন থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সামসুল আরেফিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

পূর্ববর্তী সংবাদ

আইসোলেশন কী, কাদের রাখা হবে এখানে?

করোনাভাইরাসের আতঙ্কে বিশ্ববাসী। তবে করোনায় আক্রান্ত সন্দেহ এবং করোনায় আক্রান্ত রোগীদের রাখা হয়েছে আলাদাভাবে। সেক্ষেত্রে আলদা করে কাউকে রাখা হচ্ছে কোয়ারেন্টাইনে আবারে কাউকে রাখা হচ্ছে আইসোলেশনে। কিন্তু অনেকেরই আইসোলেশন সম্পর্কে ধারণা নেই।

কাদের রাখা হচ্ছে আইসোলেশনে এসব নিয়ে মানুষের মনে রয়েছে নানা প্রশ্ন। আসুন জেনে নেই আইসোলেশন সম্পর্কে।

আইসোলেশন কী: 

প্রাথমিকভাবে বলা যায়, সুস্থ ব্যক্তি থেকে অসুস্থ ব্যক্তিদের পৃথক করে রাখার জন্য আইসোলেশন ব্যবহৃত হয়। আইসোলেশন কিছু নির্দিষ্ট রোগের বিস্তার রোধে সহায়তার জন্য অসুস্থ ব্যক্তিদের অবাধ চলাচল থেকে বিরতি রাখে। উদাহরণস্বরূপ, বর্তমানে করোনার জন্য রোগীদের আইসোলেশনে রাখা হচ্ছে। চিকিত্সা সূত্রে বলা হয়, আইসোলেশনের নির্দিষ্ট অর্থ "সংক্রামক বা সংক্রামক রোগে আক্রান্ত ব্যক্তির অন্যদের থেকে সম্পূর্ণ বিচ্ছেদ"।

রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র (সিডিসি)র মতে সংক্রামক রোগযুক্ত অসুস্থ ব্যক্তিদেরকে সুস্থ ব্যক্তিদের থেকে পৃথক রাখাই হচ্ছে আইসোলেশন।

আইসোলেশন করা হয় তখনই যখন কোনও ব্যক্তি কোনও সংক্রামক রোগে আক্রান্ত হয়, এবং যারা সুস্থ থাকে তাদের থেকে তাদের পৃথক করে রাখা হয়। মূলত এটি রোগের বিস্তার বন্ধ করতেও সহায়তা করে।

বাংলাদেশের জাতীয় রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান-আইইডিসিআর। সংস্থাটির একজন সাবেক পরিচালক ডা. মাহমুদুর রহমান বলেন, আইসোলেশন হচ্ছে, কারো মধ্যে যখন জীবাণুর উপস্থিতি ধরা পড়বে বা ধরা না পড়লেও তার মধ্যে উপসর্গ থাকবে তখন তাকে আলাদা করে যে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে তাকে বলা হয় আইসোলেশন।

সংক্ষেপে বলতে গেলে বলা যায়, আইসোলেশন হচ্ছে অসুস্থ ব্যক্তিদের জন্য আর কোয়ারেন্টিন হচ্ছে সুস্থ বা আপাত সুস্থ ব্যক্তিদের জন্য।

অবশ্য সারা পৃথিবীতেই কোয়ারেন্টাইন ও আইসোলেশনকে এভাবে সংজ্ঞায়িত করা হচ্ছে কী না সেটা স্পষ্ট নয়।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার