যারা কর্মসংস্থানের উদ্দেশ্যে বিদেশে যায় তারা অনেক ক্ষেত্রেই বিদেশে গমনের তথ্য কারো সাথে শেয়ার করতে চায় না। এমনকি কাছের আত্মীয় স্বজনদের সাথেও না। তারা না জেনে না বুঝে দালালের মাধ্যমে গোপনে বিদেশে গিয়ে গোপনেই দ্রুত বড়লোক হতে চায়। আর অতি দ্রুত বড়লোক হলে সেটা কখনোই টেকসই হয় না। অনেক সময় তারা কোন কাজের জন্য, কত বেতনে, কোন কর্মক্ষেত্রে যাচ্ছে তাও জানে না। আর এ থেকেই নানা সমস্যার সৃষ্টি হয়।

বিদেশে গমনেচ্ছু কর্মীরা যদি কাজের দক্ষতা নিয়ে যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করে বিদেশে যায় তাহলে অর্থ ও সম্মান দুইই লাভ করা যায়। তাই তাদের জেনে বুঝে ট্রেনিং নিয়ে বিদেশে গমন করা উচিত।

বুধবার (২ অক্টোবর) সকাল দশটায় রাজবাড়ী জেলা প্রশাসকের সম্মেলনকক্ষে জেলা প্রশাসক দিলসাদ বেগমের সভাপতিত্বে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়র কর্তৃক আয়োজিত ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থানে দক্ষতা ও সচেতনতা’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

এতে রিসোর্স পারসন হিসেবে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান।

বক্তারা বলেন, বাস্তব প্রশিক্ষণের মাধ্যমে দক্ষতা অর্জনই নিরাপদ অভিবাসনের একমাত্র উপায়।বর্তমান সরকার বৈদেশিক কর্মসংস্থানে দক্ষতার উপর গুরুত্ব আরোপ করায় নিরাপদ অভিবাসন নিশ্চিত হচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, চতুর্থ শিল্প বিপ্লব মোকাবেলায় যথাযথ প্রশিক্ষণ দিয়ে দক্ষ কর্মী তৈরি করতে হবে।

অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আশেক হাসানের সঞ্চালনায় সেমিনারে বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার বিভাগের উপপরিচালক মোঃ বাকাহীদ হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) খন্দকার মুশফিকুর রহমান, রাজবাড়ি কারিগরি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের অধ্যক্ষ ফাতেমা নারগিস, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপপরিচালক গৌতম চন্দ্র দে,সদর উপজেলার ইউএনও মোঃ সায়েদুজ্জজামান খান, জেলা তথ্য কর্মকর্তা তাহমিনা আক্তার সহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণমাধ্যম কর্মী, এনজিওর প্রতিনিধি, বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ।