বান্দরবানে ভ্রাম্যমাণ আদালতের জরিমানা

Img

বান্দরবানে সরকারি আদেশ অমান্য করে দোকানপাট খোলা রাখার অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালত বেশ কয়েকটি দোকানকে জরিমানা করেছে।

রোববার (১৭ মে) দুপুরে জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়েসুর রহমানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান পরিচালিত হয়।

অভিযানে দোকানপাট খোলা রাখায় বান্দরবান বাজারের এম কে আয়রন এন্ড স্টিলকে ৩ হাজার টাকা, আল আমিন এন্টারপ্রাইজকে ৩ হাজার টাকা, এম আই মোবাইল শোরুমকে ৫ হাজার টাকা, মীম ক্রোকারিজ স্টোরসকে ১ হাজার টাকা  সুজন বস্ত্রালয়ের স্বত্বাধিকারীকে ৩ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এছাড়াও সামাজিক দূরত্ব না মেনে মোটরবাইকে দুইজন সহযাত্রী নিয়ে যাতায়াত করার দায়ে একজনকে ৫শ’ টাকা জরিমানা করা হয়।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. কায়েসুর রহমান বলেন, “বান্দরবানে শপিং মল বন্ধ রাখার নির্দেশ প্রদান করার পরও কিছু ক্রেতা ও বিক্রেতার অতি উৎসাহী মনোভাবের কারণে কিছু কিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বাইরে থেকে তালা লাগিয়ে ভেতরে বিক্রি কার্যক্রম চালানোয় আমরা তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছি।”

তিনি আরো বলেন, “বাজারে দ্রব্যমূল্যের দাম স্থিতিশীল রাখার স্বার্থে সদরের বাজার, বালাঘাটা বাজার, কালাঘাটা বাজার, মেঘলা বাজার, সুয়ালক বাজারে আমরা আমাদের তদারকি কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছি। এছাড়াও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার ও সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিত করার স্বার্থে আমরা সচেতনতামূলক প্রচারণার পাশাপাশি শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিচ্ছি।“

ম্যাজিস্ট্রেট মো.কায়েসুর রহমান বলেন, “বান্দরবানবাসীর কল্যাণে ও জনস্বাস্থ্যের সুরক্ষায় আমাদের এ অভিযানে পুলিশ ও সেনাবাহিনীর সদস্যরা সহায়তা করছে।” করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে ও রমজানে দ্রব্যমূল্যের স্থিতিশীলতা বজায় রাখার স্বার্থে এ অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার