রান্না করা মাংসের বল, বিস্কুট আর বাদামের খোলা আপাতদৃষ্টিতে খাবারের জিনিস এইসব। কিন্তু তাতে করেই পাচার হচ্ছিল ৪৫ লাখ বিদেশি মুদ্রা। কিন্তু শেষরক্ষা হল না দিল্লি বিমানবন্দরে এক যাত্রীর পকেট থেকে খোঁজ মিললো খাবারের সিল করা প্যাকেট। সঙ্গে সঙ্গে তাকে হেফাজতে নেয় সিআইএসএফ।

ইন্দিরা গান্ধি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে গ্রেফতার করা হয় মুরাদ আলি নামের এক ব্যক্তিকে। তিন নম্বর টার্মিনালে সন্দেহজনক ভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখেই সন্দেহ হয় বিমানবন্দরের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা কর্মীদের। মুরাদ তখন দ্রুত দুবাইয়ের বিমান ধরতে ব্যস্ত।  নিয়ম মেনে চেকিংয়ের সময় ওই যাত্রীর কাছ থেকে পাওয়া যায় খাবারের প্যাকেটের মধ্যে লুকোনো ৪৫ হাজার বিদেশি মুদ্রা। অভিযুক্তের থেকে কোনও সদুত্তর না পাওয়ায় গ্রেফতার করা হয় তাকে।

টুইটারে সিআইএসএফের পক্ষ থেকে টুইটারে শেয়ার করা হয় একটি ভিডিও। দেখা গেছে, সৌদি রিয়াল, কাতারি রিয়াল, কুয়েতি দিনার, ওমানি রিয়াল এবং ইউরো মিলিয়ে প্রচুর মুদ্রা লুকিয়ে বাদামের খোলায়, বিস্কুটের প্যাকেটে, রান্না করা মাংসের বলে। একটা করে বাদামের খোলা ভাঙলেই বেরিয়ে আসছে মুদ্রা। একই ভাবে মাংসের টুকরো বা বিস্কুটের প্যাকেট ভাঙলে, খুললেই হুড়মুড়িয়ে বেরিয়ে আসছে নানা ধরনের বিদেশি মুদ্রা। কী কারণে এত মুদ্রা অভিযুক্ত নিয়ে দুবাইয়ে যাচ্ছিল, জানা যায়নি এখনও। 

অভিযুক্তকে গ্রেফতারের পাশাপাশি বাজেয়াপ্ত হয়েছে মুদ্রাও। নিরাপত্তা বাহিনির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মুরাদ নাকি প্রায়ই দুবাইয়ের নানা জায়গায় সফর করত। সূত্র- এনডিটিভি