বরিশালে নদী থেকে যুবকের ও পুকুর থেকে নারীর মরদেহ উদ্ধার

Img

বরিশালে একদিনে দুই নারী-পুরুষের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। জেলার আগৈলঝাড়ায় একটি পুকুর থেকে এক নারীর মরদেহ এবং সদর উপজেলার শায়েস্তাবাদে নৌকা থেকে মাঝ নদীতে পড়ে নিখোঁজ এক যুবকরে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। নারীর মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

আগৈলঝাড়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মাজহারুল ইসলাম জানান, শুক্রবার ভোরে উপজলোর রাজিহার ইউনিয়নের পশ্চিম গোয়াইল গ্রামের বীরেণ হালদারের বাড়ির
পুকুর থেকে অজ্ঞাতনামা ওই নারীর (৫৫) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। নারীর মরদেহ প্রাথমিকভাবে কোন আঘাতের চিহ্ন পাওয়া যায়নি। মরদেহের গলায় রূপার চেইন, নাকে স্বর্ণের নাক ফুল, গলায় অলংকার আলামত হিসেবে জব্দ করেছে পুলিশ। স্থানীয়রা মরদেহের পরিচয় শনাক্ত করতে পারেনি। তার পরিচয় জানতে বিভিন্ন থানায় বার্তা পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য তার মরদেহ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানান পুলিশ পরিদর্শক মাজহারুল ইসলাম।

অপরদিকে সদর উপজলোর শায়েস্তাবাদে সকালে খেয়া নৌকা থেকে পড়ে নিখোঁজ একযুবকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। তার নাম মনির হাওলাদার (৩২)। সে বরিশাল সদর উপজেলার চরকেউটিয়া গ্রামের জয়নাল হাওলাদারের ছেলে। মনির মৃগী রোগী ছিল বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানার পরিদর্শক (অপারেশন) সঞ্জয় ঘোষ জানান,

শুক্রবার সকালে শায়েস্তাবাদের নিজ বাড়িতে যাওয়ার জন্য খেয়ায় ওঠে মনির। খেয়াটি মাঝ নদীতে যাওয়ার পর সে মৃগী রোগে আক্রান্ত হয়ে নদীতে পড়ে যায়। সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল ঘটনাস্থলে পৌঁছার আগেই সকাল ১০টার দিকে একই স্থান থেকে মনিরের মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করে পুলিশ।
এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পুলিশ পরিদর্শক সঞ্জয়।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার