বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তি করা সেই মেয়রকে আ.লীগ থেকে অব্যাহতি

Img

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ম্যুরাল নির্মাণ নিয়ে কটূক্তি করে বিতর্কিত অডিও ফাঁসের পর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বুধবার বিকেলে পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের জরুরি বৈঠকে মেয়র আব্বাসের বিষয়ে এ ধরনের সিদ্ধান্ত আসে। সভায় সভাপতিত্ব করেন পবা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ইয়াসিন আলী।

ইয়াসিন আলী বলেন, সভায় আব্বাস আলীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। একই সঙ্গে কেন দলীয় সদস্য পদ থেকে স্থায়ীভাবে তাকে বহিষ্কার করা হবে না, তা জানতে চেয়ে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। আগামীকাল বৃহস্পতিবার এ-সংক্রান্ত চিঠি আব্বাস আলীকে দেওয়া হবে।

ইয়াসিন আলী আরও বলেন, ‘এই চিঠির জবাব দেওয়ার জন্য আব্বাস আলীকে তিন দিন সময় দেওয়া হয়েছে। এই জবাব সন্তোষজনক না হলে জেলা আওয়ামী লীগের মাধ্যমে কেন্দ্রে বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করা হবে। আমরা শুধু অব্যাহতি দিতে পারি এবং কারণ দর্শানোর নোটিশ দিতে পারি। কেন্দ্র এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবে।’

পূর্ববর্তী সংবাদ

রান্নাবান্নায় ৯টি ভুল বাদ দিলে চটজলদি কমবে ওজন

হ্যাঁ, ভুলটা করছেন আপনি খাবার তৈরি করতে গিয়েই। এমন কিছু কাজ করে ফেলছেন নিজের অজান্তেই, যেগুলোর কারণে অহেতুক বাড়ছে ওজন। এবং হু হু করে বাড়ছে। সবচাইতে বাজে ব্যাপারটা এই যে, এই ভুলগুলো আমরা প্রায় সকলেই করি। চলুন, জেনে নিই রান্নাবান্নায় এমন কিছু ভুলের কথা, যেগুলো না করলে ওজন কমানো কোন ব্যাপারই না। এগুলো শুধরে নিন, কয়েক সপ্তাহেই বাড়ির সকলের স্বাস্থ্যে দেখতে পাবেন পরিবর্তন।

১) ভাজা পোড়ায় ছোট্ট নিয়ম না, ভাজা পোড়া খাওয়া একেবারে বাদ দিতে হবে না। তবে ভাজা কোন খাবার তৈরির পর সেটাকে ভালো করে কিচেম টিস্যু দিয়ে মুছে নিন এবং তারপর পরিবেশন করুন। এই কাজটি অনেকেই করেন না। অথচ এর মাধ্যমে বাড়তি তেলটা কিন্তু একদম ঝড়ে যায়।

২) অতিরিক্ত চিনির ব্যবহার নিয়ন্ত্রণ অনেকেই রাঁধতে গিয়ে প্রয়োজনের অতিরিক্ত মিষ্টি দিয়ে ফেলেন। যেটুকু প্রয়োজন, সচেতনভাবে সেটুকুই দিন। বাড়তি দিয়ে অযথা কেন বাড়তি ক্যালোরি যোগ করা?

৩) বাড়তি তেলের ব্যবহার বন্ধ অনেকেই ওপরে তেল ভাসা ছাড়া তরকারি খেতেই পারেন না। এই অভ্যাসটি একদম ত্যাগ করুন, দেখবেন হয়ে উঠেছেন ফিট।

৪) সব সবজিই রান্না করবেন না হ্যাঁ, সব সবজিকে রান্না করার বদলে দৈনিক একটি সালাদ খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। ওজন কমানো হয়ে যাবে ছেলেখেলা।

৫) সব রান্নাই ভুনা নয় মাখা মাখা ভুনা তরকারী ছাড়া খেতে ভালোই লাগে না? বদলে গড়ে তুলুন ঝোল খাবার অভ্যাস। ভুনা তরকারী মানেই অনেকতা বাড়তি তেল ও মশলা, যা স্বাস্থ্যের জন্য ভালো নয় মোটেই।

৬) তেলটাকে বদলে ফেলুন রান্নায় ব্যবহার করেন ঘি, সয়াবিন , সরিষা ইত্যাদি তেল? চেষ্টা করে দেখুন বদলে সান ফ্লাওয়ার, অলিভ অয়েল কিংবা অন্য কোন স্বাস্থ্যকর তেল খাওয়া যায় কিনা। এগুলো দাম বেশি বটে, তবে অল্প ব্যবহার করলে সাশ্রয়ী হবে।

৭) মাংস থেকে চর্বি বাদ অনেকেই ফার্মের মুরগির চর্বিটাকে ফেলে দেন না, গরু কিংবা খাসি তো ফেলেনই না। এই কাজটি ভুলেও করবেন না। বরং সচেতনভাবেই মাংস থেকে বাদ দিন সমস্ত চর্বি। কেননা রান্নার সময় এই চর্বি গলে গিয়ে ঝোলে মিশে যায় ও বাড়ায় আপনার ওজন।

৮) এক খাবার খাওয়ার অভ্যাস বাদ ভাতের সাথে একটি তরকারী রেঁধেই দায়িত্ব শেষ আপনার? এই অভ্যাসটি ত্যাগ করুন। সাথে রাখুন হরেক রকমের সবজির আইটেম। এতে ভাত কম খাওয়া হবে, সবজি খাওয়া হবে বেশি।

৯) ভাতের ক্ষেত্রে সচেতন বসা ভাত কিংবা রাইস কুকারের ভাত খান? ভুলে জান এই অভ্যাসের কথা। অবশ্যই ভাতের মাড় ফেলে ভাত রান্না করবেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার