ফেনী ফুলগাজীতে সম্পত্তির জন্য বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে আহত

Img

ফুলগাজীতে সম্পত্তির জন্য বৃদ্ধা মাকে পিটিয়ে আহত করেছে ছেলে। মায়ের নাম শ্যামলা খাতুন (৭৫)। তিনি উপজেলার সদর ইউনিয়নের দক্ষিন শ্রীপুর গ্রামের বাসিন্দা।

মঙ্গলবার বিকেলে বৃদ্ধাকে ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় ফুলগাজী থানায় মা বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

পুলিশ ও পারিবারিক সূত্র জানায়, বৃদ্ধা শ্যামলা খাতুনের স্বামী হাফিজুর রহমান তিন ছেলে ও তিন মেয়ে রেখে কয়েক বছর আগে মারা যায়। ছেলে-মেয়েদের সবাই বিবাহিত। স্বামীর মৃত্যুর পর তাঁর (স্বামী) মাঠের সব সম্পত্তি মৌখিকভাবে ভাগ হলেও বাড়ীর অংশ বড় ছেলে মো. ইয়াছিন আলম (৫৫) ভোগ দখল করেন। ইয়াছিন গত কিছুদিন থেকে বাড়ীরপুরো অংশ তাঁকে লিখে দেওয়ার জন্য মায়ের উপর চাপ সৃষ্টি করেন। মা বড় ছেলেকে বাড়ীর পুরো অংশ লিখে দিতে না চাইলে তিনি ক্ষিপ্ত হয়। মাকে নানাভাবে গালমন্দও করেন।

এনিয়ে ঝগড়া ও বাকবিতন্ডার এক পর্যায়ে সোমবার বিকেলে বড় ছেলে ইয়াছিন লাঠি দিয়ে বৃদ্ধা মাকে লাঠি দিয়ে উপর্যুপরী পিটিয়ে আহত করে। স্থানীয় লোকজন এগিয়ে গিয়ে মাকে উদ্ধার করে তাৎক্ষণিকভাবে চিকিৎসার ব্যবস্থা করে। গত মঙ্গলবার বৃদ্ধকে ফেনী সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ফেনী ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা (আরএমও) মো. আবু তাহের পাটোয়ারী জানান, বৃদ্ধার শরীরে আঘাতের চিহ্ন আছে। চিকিৎসা শুরু হয়েছে।

ফুলগাজী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ কুতুব উদ্দীন বৃদ্ধাকে তাঁর বড় ছেলে পিটিয়ে আহত করার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। আইনগত নেওয়া হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার