পাইকগাছায় সাংবাদিক-পৌর কাউন্সিলর-শিক্ষকসহ করোনায় আক্রান্ত ১১

বিষয়: করোনাভাইরাস
Img

পাইকগাছায় এ পর্যন্ত সাংবাদিক, সাংবাদিকের স্ত্রী, পৌর কাউন্সিলর, শিক্ষকসহ ১১ জন করোনাভাইরাসে (কোভিড -১৯) আক্রান্ত হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ২ জন। উপজেলা প্রশাসন পাইকগাছাকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় লকডাউন ঘোষণা করেছে।

লকডাউন ঢিলে ঢালা থাকলেও মানুষ আইনের তোয়াক্কা না করে যত্রতত্রভাবে চলাফেরা করছে। 
জানা যায়, উপজেলার বাণিজ্যিক শহর কপিলমুনিতে দৈনিক জন্মভুমির সাংবাদিক তপন পাল প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়। তারপর তার স্ত্রী তৃপ্তি রানী পাল করোনায় আক্রান্ত হয়। এরপর কপিলমুনি ইউনিয়নের কাশিমনগর গ্রামের রাম প্রসাদ শীল,প্রতাপকাটি গ্রামের আব্দুল মান্নান মাস্টার, রাড়ুলী ইউনিয়নের বাঁকা গ্রামের সুমন দত্ত, কপিলমুনি ইউনিয়নের কাশিমনগর গ্রামের প্রসেনজিৎ, পাইকগাছা পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সেলিম নেওয়াজ, সর্বশেষ রাড়ুলী ইউনিয়নের শ্রীকান্ঠপুর গ্রামের হিমা বেগম, কাশিমনগর  গ্ৰামের আসলাম, মামুদকাটি গ্ৰামের দুলাল বিশ্বাস ও পৌরসভার ৬ নং ওয়ার্ডের মারজাল ঢালী করোনাভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে বলে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কর্মকর্তা ডাক্তার নীতিশ চন্দ্র গোলদার নিশ্চিত করেন। 

এদিকে কপিলমুনি শহরের সাংবাদিক দম্পতি তপন পাল ও তার স্ত্রী তৃপ্তি পাল সুস্থ হয়েছেন বলে ডাঃ নিতীশ চন্দ্র গোলদার ও সাংবাদিক তপন পাল মোবাইলে নিশ্চিত করেছেন।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার