পরীক্ষা পাশের মিষ্টি কিনতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরলেন শিক্ষার্থী

Img
স্কুলছাত্র নিহতের খবর পেয়ে স্থানীয়রা বাসে আগুন ধরিয়ে দেয়

এসএসসি পরীক্ষায় সদ্যোত্তীর্ণ চার বন্ধু মোটরসাইকেলে করে মিষ্টি কিনে বাড়ি ফেরার পথে বাসের ধাক্কায় একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় আহত হয়েছেন আরও তিনজন।

আজ মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজস্থ চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনার পরপরই ক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দিলেও পুলিশ তৎক্ষণিক ঘটনাস্থলে গিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

কক্সবাজার সদর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) খায়রুজ্জামান জানান, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঈদগাহ ফরিদ আহমদ কলেজ এলাকায় চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে এসএসসি পরীক্ষায় সদ্যোত্তীর্ণ চার দুই বন্ধু মিষ্টি কিনে এক মোটরসাইকেলে করে ফেরার পথে বাসের সঙ্গে দুর্ঘটনা ঘটে।

এ সময় বাসের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই একজন নিহত হয়। নিহত ছাত্র রামু উপজেলার রশিদনগর ইউনিয়নের কালীরছড়া এলাকার মোহাম্মদ ইমরান (১৬)।

এ সময় গুরুতর আহত হয় আরও তিনজন। তারা ডুলাহাজারা খ্রিস্টান মেমোরিয়াল হাসপাতাল ও চট্রগ্রাম মেলিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাদের মধ্যে মোহাম্মদ রাহুল (১৭) নামের আরেক ছাত্রের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

অপর আহত দুজন হলেন- মোহাম্মদ জয়নাল ও মোহাম্মদ শামীম। হতাহতরা সবাই সোমবার প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলে উত্তীর্ণ হয়েছেন।

ঘটনাস্থল থেকে এসআই সঞ্জিত স্থানীয়দের বরাতে দিয়ে বলেন, এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ চার বন্ধু একটি মোটরসাইকেলে করে মিষ্টি কিনতে গিয়েছিল ঈদগাহ স্টেশনে। বাড়িতে ফেরার পথে চট্টগ্রামমুখী হানিফ পরিবহনের একটি বাস তাদের বিপরীত দিক থেকে ধাক্কা দেয়। এতে এক মোটরসাইকেলে থাকা চার বন্ধু আহত হয়। কিছুক্ষণ পর ইমরান মারা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুর্ঘটনার পর চালক ও সহকারী পালিয়ে গেলেও ক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। খবর পেয়ে পুলিশ বাসের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে এবং ক্ষুব্ধ লোকজনকে সড়ক থেকে সরিয়ে দিয়ে গাড়ি চলাচল স্বাভাবিক করে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার