নেশার টাকা না পেয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে কিশোরের আত্মহত্যা

Img

নেশার টাকা না পেয়ে বরিশাল নগরীর পলাশপুরে গলায় ফাঁস দিয়ে বাপ্পি খান (১৪) নামের এক কিশোর আত্মহত্যা করেছে।

শুক্রবার গভীর রাতে নিজ বসায় ঘরের আড়ার সাথে সে গলায় ফাঁস দেয়। পরবর্তীতে স্বজনেরা উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে নেওয়ার আগেই তার মৃত্যু ঘটে।

বাপ্পি খান বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানাধীন পলাশপুর এলাকার শাহিন খানের পুত্র এবং সে নগরীর বান্দরোডের মোটরসাইকেলের পার্টস বিক্রয়ের দোকানে কাজ করতো।

এই কিশোরের মা জানিয়েছেন, বাপ্পি কিছুদিন ধরে নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ে। সে মাদক ক্রয়ের টাকার জন্য প্রায়শই ঘরে আশান্তি করে আসছিল। শুক্রবার সন্ধ্যা রাতে সে নেশার টাকার জন্য ফের অত্যাচার চালায়। এ সময় তাকে গালমন্দ করলে সে রাগ করে ঘর থেকে বেরিয়ে যায়। পরবর্তীতে রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঘরে আসে এবং সকলের অজান্তে ঘরের আড়ার সাথে রশি দিয়ে গলায় ফাঁস দেয়। এসময় আত্মচিৎকারের শব্দ পেয়ে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে বরিশাল শের-ই বাংলা মেডিকেল কলেজ (শেবাচিম) হাসপাতালে নেওয়া হয়। কিন্তু এর আগেই তার মৃত্যু হয় বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক।

হাসপাতালের ওয়ার্ড মাস্টার আবুল কালাম জানান, কিশোরের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা হয়েছে।

ঘটনাস্থল সংশ্লিষ্ট বরিশাল মেট্রোপলিটন কাউনিয়া থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুর রহমান মুকুল জানিয়েছেন, কিশোরের আত্মহত্যার খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশের টিম পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার প্রক্রিয়া শুরু হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার