নেত্রকোনায় করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু, লাশ ফেলে চলে গেলেন স্বজনরা

Img

নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার মল্লিকপুর গ্রামের ঢাকাফেরত নরউত্তম সরকার (৫৫) নামে এক ব্যক্তি শনিবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ নমুনা সংগ্রহ করে ময়মনসিংহ পাঠিয়েছে।

জানা গেছে, নরউত্তম গত কয়েকদিন আগে ঢাকা থেকে ছেলেকে নিয়ে বাড়ি আসেন। এরপর থেকে তার সর্দি-জ্বর দেখা দেয়।

শনিবার সকালে শ্বাসকষ্ট হলে দূর সম্পর্কের এক ভাগ্নীসহ কয়েকজন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে। পরবর্তীতে ডাক্তার করোনা সন্দেহ করলে নমুনা সংগ্রহ করা হয়। কিন্তু কিছুক্ষণ পর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে রেন্টি গাছের নীচে একা পড়ে থাকতে দেখা যায় ওই ব্যক্তিকে।

পরে উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা (টিএইচও) ডা. নুর মো. শামছুল আলমের নজরে পড়লে ওই ব্যক্তিকে ডেকে জিজ্ঞেস করে হাসপাতালে নিয়ে রাখেন। পাশাপাশি স্বজনদের খোঁজ করলেও তাদের দেখা পাওয়া যায়নি। পরে ছেলেদের নাম্বার সংগ্রহ করে তাদেরকে আসতে বলেন টিএইচও।

এদিকে, বিকাল ৫টার দিকে ওই ব্যক্তি মারা যান। তখনো কেউ না আসায় ডাক্তাররা নিজ উদ্যোগে অ্যাম্বুলেন্স করে লাশ বাড়ি পাঠিয়েছেন।

এ ব্যাপারে টিএইচও জানান, একজন মানুষকে ফেলে চলে যাওয়াটা খুবই দুঃখজনক। কারণ ওই ব্যক্তি করোনায় আক্রান্ত কিনা তা এখনও শনাক্ত হয়নি। কাজেই আমি তাদের ডেকেও পাইনি। কিন্তু ওই ব্যক্তির রাস্তায় পড়ে থাকা দেখে আমার খারাপ লাগায় জিজ্ঞেস করলাম উনার লোকজন কোথায়। না পেয়ে নিজের গাড়িতেই করে হাসপাতালে নিয়ে রাখি। অবশেষে যেহেতু মারা গেছেন রিপোর্টের ফলাফল আসলে সাথে যারা এসেছিলেন তাদের খুঁজে বের করা হবে।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার