ধামরাইয়ে নারী শ্রমিককে ধর্ষণচেষ্টা, ধর্ষককে কুপিয়ে জখম

Img

ঢাকার ধামরাইয়ে এক ইটভাটা শ্রমিককে ধর্ষণচেষ্টাকালে ধর্ষককে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করেছে ক্ষুব্ধ শ্রমিকরা।

মঙ্গলবার (১২ মে) ভোর রাতে উপজেলার পশ্চিম সূত্রাপুর চৌরাস্তা এলাকাস্থ “এসএমজি ইটভাটায়” এ ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত ধর্ষক ধামরাইয়ের বালিয়া ইউনিয়নের পশ্চিম সূত্রাপুর গ্রামের জামাল উদ্দিনের বখাটে ছেলে আবুল হোসেন।

পুলিশ জানায়, মৌসুম শেষে বেশিরভাগ শ্রমিক ভাটা ছেড়ে চলে যাওয়ার সুযোগে ইটভাটার নারি শ্রমিক কলোনীতে ঢুকে এক তরুণীকে ধর্ষণ করে। এসময় ধর্ষিতার চিৎকারে বাকি শ্রমিকরা এসে ওই ধর্ষককে ধরে ফেলে। এসময় সে পালাতে গেলে ও হুমকি ধামকি দিলে ক্ষুব্ধ শ্রমিকরা তাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে প্রথমে সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে তার অবস্থা খারাপ হলে মানিকগঞ্জ জেলা সদর হাসপাতালে নেয়া হয়।

এবিষয়ে এসএমজি ইটভাটার মালিক মো. জাবেদ পাটোয়ারি বলেন, বেশিরভাগ শ্রমিক ভাটা ছেড়ে চলে গেছে। অফিস স্টাফ, বাবুর্চি ও পুরুষসহ কয়েকজন নারী শ্রমিক ভাটায় রয়েছে। বিষয়টি জানতে পেরে ওই ধর্ষক গভীর রাতের আঁধারে ভাটায় ঢুকে ওই নারী শ্রমিককে ধর্ষণ করে। তার চিৎকারে শ্রমিকরা এগিয়ে এসে ওই ধর্ষককে আটক ও কুপিয়ে জখম করে।

এবিষয়ে কাওয়ালীপাড়া বাজার পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মো. রাসেল মোল্লা প্রবাসীর দিগন্তকে বলেন, এবিষয়ে ধর্ষকের বিরুদ্ধে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে যথাযথ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান পুলিশের এই কর্মকর্তা।

প্রতিক্রিয়া মন্তব্য শেয়ার