চোখের আলো নেই তাতে কী? মনের আলোর কমতি নেই এতটুকুও। আর তাইতো যুগ পূর্ণ করে ভালোবাসার আলো ছড়াচ্ছেন, গাজীপুরের এক অন্ধ দম্পতি। পারস্পরিক মমত্ববোধ ও দেখভালসহ সংসারের কোনো কাজেই বাধা হতে পারেনি, তাদের দৃষ্টিহীনতা।

রাহাদ-নাজমা দম্পতি। হাতে হাত রেখে এভাবেই ভালোবাসার বন্ধনে পার করেছেন এক যুগ। এভাবেই চলতে চান, জীবনের বাকিটা সময়ও। ১৫ বছর আগে ঝিনাইদহ ও কুমিল্লা থেকে জীবিকার সন্ধানে আসেন। আর এক যুগ আগে গাজীপুরের টঙ্গী আমতলী এলাকায় ছোট্ট ঘরে সংসার শুরু করেন।

দু’জনই বাল্যকাল থেকে দৃষ্টিহীন হলেও পৃথিবীর আলো দেখতে পায় তাদের ৫ বছরের সন্তান সিফাত। সংসার চলে রাস্তায় ঘুরে ঘুরে গান গেয়ে মানুষের ভালবাসার পাওয়া অর্থ দিয়ে। আয় সীমিত হলেও, সুখে-দুখে একে-অন্যের প্রতি অসাধারণ অংশীদারিত্বই তাদের জীবন সংসারকে করেছে শাশ্বত।

এ প্রসঙ্গে রাহাদুল-নাজমা দম্পতি বলেন, শান্তি হচ্ছে মনের ব্যাপার। আপনার মনে যদি অশান্তি থাকে, তাহলে স্বর্গ গিয়েও শান্তি পাবেন না। আমি মনে করি আমার দুনিয়াই একটি স্বর্গ। আমার পরিবারে ভালোবাসার কোনো অভাব নেই। সে আমাকে কখনো ধোকা দিবে না, আমাদের উভয়ের প্রতি আমাদের সে বিশ্বাস আছে।

রাহাদ-নাজমা দম্পতির সংসার টিকে থাকুক অনন্তকাল, বিশ্ব ভালোবাসা দিবসে এমন প্রত্যাশা সবার।